শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন

সিলেটে স্বেচ্ছাসেবকলীগ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ গোলাগুলিতে আহত ৫

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: সিলেটে স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় নগরীর আখালিয়া নয়াপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

সংঘর্ষের সময় স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মুনিম আহমদের বাসায় গুলি ছোড়ার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

মুনিম আহমদ বলেন, আখালিয়া নয়াপাড়ায় বর্ডার গার্ড স্কুলের উত্তর পাশে তার বাসা। সন্ধ্যায় মাগরিবের কিছুক্ষণ পর স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সুজেল গ্রুপ ও ছাত্রলীগ নেতা সুমন গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। সুমন গ্রুপের সুমন, রাজনসহ কয়েকজন তার (মুনিম) বাসার সামনে অবস্থান নেয়। তখন তিনি তাদেরকে সেখানে গোলাগুলি না করতে অনুরোধ করেন। এরপর সুমন গ্রুপের নেতাকর্মীরা সরে পড়েন। তবে এর পরপরই সুজেল গ্রুপের নেতাকর্মীরা তার বাসার সামনে এসে গোলাগুলি করতে থাকে।

মুনিম বলেন, তিনি বাসায় দরজা-জানালা বন্ধ করে অবস্থান করছিলেন। বাসার একটি জানালা কিছুটা খুলে সুজেল গ্রুপের নেতাকর্মীদের বাসার সামনে থেকে সরে যাওয়ার অনুরোধ জানান তিনি। এসময় তার বাসায় শর্টগানের ৫-৬ রাউন্ড গুলি হয়। এতে তিনি, তার নবম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে সামিয়া আক্তার মাইশা আহত হন।

এদিকে সংঘর্ষের ঘটনায় সুজেল গ্রুপের কর্মী নয়াপাড়ার বশির মিয়ার ছেলে জুনেদ আহমদ (২৯), সুমন গ্রুপের কর্মী সুরমা আবাসিক এলাকার আব্দুল মালেকের ছেলে মারুফ আহমদ (১৮) ও পথচারী শাহী ঈদগাহের জয়নাল মিয়ার ছেলে রাকিব আহমদ (২০) আহত হয়েছেন।

সংঘর্ষের খবর পেয়ে নগরীর জালালাবাদ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ মুনিম আহমদের বাসায় গিয়ে শর্টগানের গুলির খোসা ও অন্যান্য আলামত সংগ্রহ করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার জেদান আল মুসা যুগান্তরকে বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুটি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাদেরকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। পুলিশ ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com