মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:২০ অপরাহ্ন

ভোটার হচ্ছেন প্রবাসীরাও, সেপ্টেম্বরে কার্যক্রম শুরু

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: আসছে সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ড সরবরাহ কার্যক্রম শুরু করতে চায় নির্বাচন কমিশন (ইসি)। উন্নতমানের এনআইডি বা স্মার্টকার্ড সরবরাহ করতে একটি নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর হোসেন এসব কথা জানান।

তিনি বলেন- প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার হিসেবে নিবন্ধন করা হবে সংশ্লিষ্ট দেশেই। এ জন্য উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা স্মার্টকার্ড সরবরাহ করতে আজ নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে। সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই এ কার্যক্রম শুরু করতে চায় ইসি। সিঙ্গাপুর থেকে এ কার্যক্রম শুরু হবে।

বৈঠক শেষে সচিব বলেন, আমরা আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। এখন কেবল সিঙ্গাপুর সরকারের অনুমোদন দেয়ার বাকি। তারা অনুমোদন দিলেই আমরা কাজ শুরু করব। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে অনুমতি-সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে।

মো. আলমগীর বলেন, সিঙ্গাপুরে প্রবাসীদের সংখ্যা কম। কাছের দেশ। তাই ওখানে পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চালানো হবে। এরপর আমরা মধ্যপ্রাচ্যের দিকে যাব। ইতোমধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা সৌদি আরবে এ বিষয়ে সম্ভাব্যতা যাচাই করে এসেছেন। সেখানে অবস্থিত প্রবাসী, দূতাবাসের সঙ্গে তিনি আলোচনা করেছেন। তাদের পক্ষ থেকে আগ্রহের কথা জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা আইন পরীক্ষা করে দেখেছি। কোথাও কোনো সাংঘর্ষিক অবস্থা নেই। আমরা আজকের বৈঠকে নীতিমালা চূড়ান্ত করেছি। এ জন্য আমাদের বিধিমালাও সংশোধন করতে হবে। এটা আমরা শিগগিরই করব।

ইসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রবাসীদের সমস্যা দ্রুত সমাধানের লক্ষ্যে নীতিমালাই কেবল বাকি। অন্যান্য কার্যক্রম আগেই সম্পন্ন করা হয়েছে। সিঙ্গাপুর, মালদ্বীপ, ব্রিটেন, সৌদি আরবে ইতোমধ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই শেষ হয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরেই প্রবাসী বাংলাদেশিরা এনআইডি-সংক্রান্ত নানা সমস্যায় ভুগছেন। তাদের সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনার পর প্রবাসেই দূতাবাসের মাধ্যমে এনআইডি সরবরাহের উদ্যোগ নেয় ইসি।

ভোটার হচ্ছেন প্রবাসীরাও, সেপ্টেম্বরে কার্যক্রম শুরু

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: আসছে সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ড সরবরাহ কার্যক্রম শুরু করতে চায় নির্বাচন কমিশন (ইসি)। উন্নতমানের এনআইডি বা স্মার্টকার্ড সরবরাহ করতে একটি নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর হোসেন এসব কথা জানান।

তিনি বলেন- প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার হিসেবে নিবন্ধন করা হবে সংশ্লিষ্ট দেশেই। এ জন্য উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা স্মার্টকার্ড সরবরাহ করতে আজ নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে। সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই এ কার্যক্রম শুরু করতে চায় ইসি। সিঙ্গাপুর থেকে এ কার্যক্রম শুরু হবে।

বৈঠক শেষে সচিব বলেন, আমরা আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। এখন কেবল সিঙ্গাপুর সরকারের অনুমোদন দেয়ার বাকি। তারা অনুমোদন দিলেই আমরা কাজ শুরু করব। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে অনুমতি-সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে।

মো. আলমগীর বলেন, সিঙ্গাপুরে প্রবাসীদের সংখ্যা কম। কাছের দেশ। তাই ওখানে পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চালানো হবে। এরপর আমরা মধ্যপ্রাচ্যের দিকে যাব। ইতোমধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা সৌদি আরবে এ বিষয়ে সম্ভাব্যতা যাচাই করে এসেছেন। সেখানে অবস্থিত প্রবাসী, দূতাবাসের সঙ্গে তিনি আলোচনা করেছেন। তাদের পক্ষ থেকে আগ্রহের কথা জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা আইন পরীক্ষা করে দেখেছি। কোথাও কোনো সাংঘর্ষিক অবস্থা নেই। আমরা আজকের বৈঠকে নীতিমালা চূড়ান্ত করেছি। এ জন্য আমাদের বিধিমালাও সংশোধন করতে হবে। এটা আমরা শিগগিরই করব।

ইসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রবাসীদের সমস্যা দ্রুত সমাধানের লক্ষ্যে নীতিমালাই কেবল বাকি। অন্যান্য কার্যক্রম আগেই সম্পন্ন করা হয়েছে। সিঙ্গাপুর, মালদ্বীপ, ব্রিটেন, সৌদি আরবে ইতোমধ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই শেষ হয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরেই প্রবাসী বাংলাদেশিরা এনআইডি-সংক্রান্ত নানা সমস্যায় ভুগছেন। তাদের সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনার পর প্রবাসেই দূতাবাসের মাধ্যমে এনআইডি সরবরাহের উদ্যোগ নেয় ইসি।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com