শুক্রবার, ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:০৬ পূর্বাহ্ন

ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবেন রাফির দুই বান্ধবী

পুলিশের বেষ্টনীতে আদালতে মোয়াজ্জেম হোসেন। ফাইল ছবি

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবেন রাফির দুই বান্ধবীডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে নুসরাত জাহান রাফির দুই বান্ধবী আদালতে সাক্ষ্য দেবেন।

বুধবার সাইবার ট্রাইব্যুনালের (বাংলাদেশ) বিচারকের আদালতে দুই বান্ধবীসহ তিনজনের সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

আদালত আবেদন মঞ্জুর করে সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য ৪ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন। ওই দিন রাফির দুই বান্ধবী নাসরিন সুলতানা ফুর্তি ও নিসাত সুলতানা এবং সিআইডির ফরেনসিক কর্মকর্তা সাক্ষ্য দেবেন।

আদালত সূত্র জানায়, ১৭ জুলাই আসামি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জ (অভিযোগ) গঠনের মাধ্যমে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হয়।

এরপর ২১ জুলাই সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়। এর আগে ১৭ জুন মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। এরও আগে ১৬ জুন হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার হন তিনি।

২৭ মে তার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ট্রাইব্যুনালে দাখিল করে তদন্ত সংস্থা। ওই দিনই আদালত তা আমলে নিয়ে আসামি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

পিবিআইয়ের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রিমা সুলতানার দাখিল করা তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘২৭ মার্চ দুপুর ১টা ১৮ মিনিটে ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন তার ব্যক্তিগত মোবাইল ব্যবহার করে রাফির জবানবন্দি ভিডিও ধারণ, প্রচার করেন। সুশৃঙ্খল পুলিশ বাহিনীর সদস্য হয়েও তিনি নিয়মবহির্ভূতভাবে ভিকটিম রাফির শ্লীলতাহানির ঘটনার বক্তব্য ভিডিও ধারণ ও প্রচার করে অপেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়েছেন। যার ফলে পুলিশ বাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে।’

১৫ এপ্রিল সাইবার ট্রাইব্যুনালে ওসি মোয়াজ্জোমের বিরুদ্ধে মামলা হয়। সুপ্রিমকোর্টের আলোচিত আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মৃদুভাষণ ডেস্ক ::


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com