শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:২৫ অপরাহ্ন

বৃষ্টির পোশাকে…

বর্ষায় কখনো আকাশ মেঘকালো করে ঝুম বৃষ্টি। আবার কখনো সারা দিন টিপটিপ বৃষ্টি। কর্মজীবী অথবা কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া নারীদের এই আবহাওয়ায় পোশাক নির্বাচনে পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। বৃষ্টিকে তো আর আটকানো সম্ভব নয়। তবে চিন্তা-ভাবনা করে কাপড় বাছাই করে বাড়তি ঝামেলাটুকু এড়িয়ে চলতে পারেন।

বর্ষাকালে মোটা, ভারী বুননের কাপড়ের পোশাক পরিহার করার পরামর্শ দেন গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের উপাধ্যক্ষ সোনিয়া বেগম। এই আবহাওয়ায় কৃত্রিম তন্তুর তৈরি কাপড়ের পোশাক বেশি আরামদায়ক হবে বলে জানান তিনি। সিনথেটিক– জাতীয় (জর্জেট, সিল্ক) কাপড় সহজে শুকিয়ে যায় এবং কালো দাগ পড়ার সম্ভাবনা কম। শাড়ির ক্ষেত্রেও শিফন, সিল্ক, মসলিন–জাতীয় শাড়ি আদর্শ। তিনি আরও জানান, সাদা কাপড় যেমন বৃষ্টির দিনে মানানসই নয়, কালো কাপড়ও তেমনি পরা উচিত নয়। কালো কাপড় ভিজে গেলে ছোপ ছোপ দাগ পড়ে যায়।

পোশাক পরতে পারেন একটু খাটো। কাদায় ময়লা হওয়ার আশঙ্কা যাতে না থাকে। সালোয়ারও আঁটসাঁট হলে ভালো হয়। বর্ষা শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আলমারিতে রাখা কাপড় রোদে দেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। এতে কাপড়ের মধ্যে থাকা গুমোট গন্ধ কেটে যাবে। আলমারিতে কাপড় রাখার সময় কাপড়ের ফাঁকে ফাঁকে ন্যাপথলিন ব্যবহার করুন। এটা কাপড়কে ছত্রাক থেকে বাঁচিয়ে রাখবে, সুরক্ষিত রাখবে।

দেশের অন্যতম ফ্যাশন হাউস সাদাকালোর চেয়ারপারসন ও ডিজাইনার তাহসীনা শাহীন জানান, বৃষ্টি হলেও আমাদের দেশে অনেক সময় গুমোট গরম পড়ে। কারণ বাতাসে আর্দ্রতা পরিমাণ বেশি থাকে। এমন আবহাওয়ার জন্য পাতলা সুতি পোশাক আরামদায়ক। তিনি আরও বলেন, এ সময় ছাপা নকশার কাপড় পরা ভালো। কারণ হঠাৎ বৃষ্টিতে কাপড় ভিজে গেলেও অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে না। বৃষ্টির দিনে নীল রঙের পোশাকই যেন মানানসই। এ ছাড়া সি গ্রিন, লেমন কিংবা সবুজ রংও বেশ ভালো লাগে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com