শুক্রবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৮, ০৭:৩৮ অপরাহ্ন

খসরুর কথোপকথন অপরাধ না: ফখরুল

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর বাসায় পুলিশের তল্লাশির নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘ফোনে আমীর খসরুর কথোপকথন তো অপরাধ নয়।’

আজ রোববার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, ‘আমীর খসরু সাহেব কী বলেছেন, তা আমি শুনিনি। যতদূর শুনেছি, তাতে তিনি বলেছেন, বসে আছো কেন? ছাত্রদের সঙ্গে মাঠে নেমে পড়ো। এ কথাটি কোন পরিপ্রেক্ষিতে বলা হয়েছে, সেটা ওই কথোপকথনে উল্লেখ নেই। এটি তো অপরাধ নয়। কারণ, গোটা বাংলাদেশ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে। গোটা দেশের মানুষ নেমে পড়েছে, অপরাধটা কোথায়? তিনি অভিযোগ করেন, কণ্ঠস্বর তৈরি করে বা বিকৃত করে অডিও বের করা অস্বাভাবিক কিছু না।’

ফখরুল ইসলাম অভিযোগ করেন, বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর বাসায় পুলিশ গত রাতে তল্লাশি করেছে। তিনি একজন সাবেক মন্ত্রী। বাংলাদেশের একজন সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। তাঁর বাসায় বারবার হামলা চালানোর ঘটনা বিএনপি ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ওপর হামলা। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আমীর খসরুর ওপর ‘হামলা’ বন্ধের আহ্বান জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল অভিযোগ করেন, মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের ওপর আওয়ামী লীগ ‘সন্ত্রাসীরা’ হামলা চালিয়েছে। বার্নিকাটের ওপর হামলা মানে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর হামলা।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, এই হামলার ঘটনায় বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বিরাট ক্ষুণ্ন হবে। উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের বাসায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের বিদায় উপলক্ষে এক সৌজন্য নৈশভোজের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে মার্কিন রাষ্ট্রদূত অংশ নেন। কিন্তু বদিউল আলমের মোহাম্মদপুরের বাসার সামনে আগে থেকেই আওয়ামী লীগের ‘সন্ত্রাসীরা’ অবস্থান নেয়। বদিউল আলমের বাড়ির দরজায় ধাক্কাধাক্কি করছিল। তিনি আরও বলেন, ওই সময়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূত বের হলে আওয়ামী ‘সন্ত্রাসীরা’ তাঁর গাড়িতে আক্রমণ করে এবং ইট-পাথর নিক্ষেপ করে। এ ঘটনায় তাঁর গাড়ির চালক আহত হয়েছেন। ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীর কারণে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের জীবন রক্ষা পেয়েছে।

হামলাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের দাবি জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম। তিনি বলেন, বদিউল আলম মজুমদার একজন সজ্জন এবং স্পষ্টভাষী মানুষ। এই হামলায় তাঁর বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে এবং হামলায় তাঁর ছেলে আহত হয়েছেন। তিনি হামলার নিন্দা জানান।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে রাজধানীর প্রগতি সরণিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনার ওপর হামলা করে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের শরিক জামায়াতে ইসলামীর নেতা–কর্মীরা। হামলায় রাষ্ট্রদূতের গাড়িচালক সামান্য আহত হন এবং গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এদিকে গতকাল ধানমন্ডির ঘটনার বিষয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের মাধ্যমে জানা গেছে, গতকাল ‘ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের’ হামলায় বেশকিছু শিক্ষার্থী আহত হয়ে হাসপাতালে গেছে। তবে কতজন ভর্তি হয়েছে, সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com