মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন

হিন্দু স্ত্রীর লাশ নিয়ে বেকায়দায় ট্যাক্স কর্মকর্তা!

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: প্রায় ২০ আগে ‘স্পেশাল ম্যারেজ অ্যাক্ট’ অনুসারে হিন্দু ধর্মাবলম্বী মেয়েকে বিয়ে করেন ট্যাক্স কর্মকর্তা ইমতিয়াজুর রহমান। গত সপ্তাহে মাল্টি অর্গান ফেইলর হয়ে মৃত্যু হয় স্ত্রী নিবেদিতা ঘটকের। প্রথা মেনে স্ত্রীর দাহ করেন ইমতিয়াজুর। কিন্তু শেষকৃত্য করতে গিয়েই বিপদে পড়েন তিনি।

ইমতিয়াজুর ভারতের পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কমার্শিয়াল ট্যাক্স বিভাগের অ্যাসিস্টেন্ট কমিশনার। কলকাতার এই বাসিন্দা দিল্লি গিয়েছিলেন স্ত্রী নিবেদিতার চিকিৎসার জন্য। সেখানেই গত সপ্তাহে মৃত্যু হয় তার।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, স্ত্রীর মৃত্যুর পরেই বিপদে পড়েন ইমতিয়াজুর। প্রথা মেনে দিল্লির নিগম বোধ ঘাটে হিন্দু স্ত্রীকে দাহ করেন তিনি। কিন্তু, শেষকৃত্য করতে গিয়েই বাধা পান ইমতিয়াজুর।

১২ আগস্ট শ্রাদ্ধানুষ্ঠান করার জন্য দিল্লির চিত্তরঞ্জন পার্কের কালীমন্দিরে সময় বুক করেছিলেন ইমতিয়াজুর। কিন্তু বুকিং নিশ্চিত করার পরেও মন্দির কর্তৃপক্ষ তা বাতিল করে দেয়।

সংবাদমাধ্যমকে ইমতিয়াজুর জানান, তার স্ত্রী নিবেদিতা বরাবরই হিন্দু রীতিনীতি মানতেন। এবং তার ইচ্ছে ছিল হিন্দুমতেই শেষকৃত্য হোক।

ইমতিয়াজুর রহমানের এই যুক্তির পরিপ্রেক্ষিতে মন্দির কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইমতিয়াজুর প্রথমে বুকিং করেছিলেন নিজের মেয়ে ইহিনি আমব্রিনের নামে। এই নামেই সন্দেহ হয় মন্দির কর্তৃপক্ষের। এবং গোত্র জানতে চাইলে তা বলতে পারেন না ইমতিয়াজুর।

জীবিত অবস্থায় যে স্ত্রীকে কখনও তার ধর্ম নিয়ে কিছু বলেননি, তার মৃত্যুর পরে শেষ ইচ্ছের সম্মান রাখতে যে এমন হয়রানি হবে তা ভাবেননি ইমতিয়াজ। এখনও শেষকৃত্য হয়নি নিবেদিতার। তবে হাল ছাড়েননি এই সরকারি কর্মকর্তা। সূত্র: এবেলা


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com