সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৪৬ অপরাহ্ন

৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচল শুরু

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: রাজধানীর উত্তরা হাউস বিল্ডিং এলাকায় গ্যাসলাইন লিকেজ (ছিদ্র) হয়ে প্রচণ্ড বেগে গ্যাস নির্গত হওয়ায় আশপাশের সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে র‌্যাপিড বাস ট্রান্সপোর্ট (বিআরটি) লাইন প্রকল্পের কাজ করার সময় এ ঘটনা ঘটে।

তাৎক্ষণিকভাবে লাইনটি মেরামত করতে না পারায় এ অবস্থা সৃষ্টি হয়। এতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। ৪ ঘণ্টা পর রাত সোয়া ১২টার দিকে গ্যাস লাইন মেরামত করা হয়। এরপর ওই সড়কে যান চলাচল শুরু হয়। এর আগে যান চলাচল বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষকে চরম বিপাকে পড়তে হয়।

অনেক যাত্রীকে বাস থেকে নেমে হেঁটে রওনা দিতেও দেখা গেছে। গ্যাস লাইনের লিকেজ হয়ে গ্যাস নির্গত হওয়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস, তিতাস গ্যাসের টিম এবং স্থানীয় প্রশাসনের একাধিক টিম উপস্থিত হয়। তিতাস গ্যাসের উত্তরা অঞ্চলের কর্মকর্তা শাহ মো. আকমল  বলেন, গ্যাস লাইন লিকেজ হওয়ার খবর পেয়ে তিতাস গ্যাসের টিম নিয়ে তিনি ঘটনাস্থলে আসেন। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের পর লাইন মেরামতের কাজ শুরু করেন তারা।

গ্যাস নির্গত হওয়ার কারণে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের হাউস বিল্ডিং এলাকার সড়কের উভয় পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় আজমপুর থেকে বিশ্বরোড এবং হাউস বিল্ডিং থেকে গাজীপুর রাস্তার দু’পাশে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। সূত্র জানায়, রাতে বিমানবন্দর-গাজীপুর বিআরটি লাইন প্রকল্পের কাজ করছিলেন শ্রমিকরা। এ সময় হাউস বিল্ডিং ও রাজউক কলেজের মাঝামাঝি স্থানে প্রধান সড়কে গ্যাসের মূল লাইনে লিকেজ হয়।

এ সময় প্রচণ্ড বেগে গ্যাস নির্গত হওয়া শুরু করলে শ্রমিকরা দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে সরে যান। রাত সাড়ে ১১টার দিকে উত্তরা ট্রাফিক জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার জুলফিকার আলী  বলেন, গ্যাস লাইন ছিদ্র হওয়ার খবর পেয়ে রাস্তায় গাড়ি ও জনগণের নিরাপত্তার জন্য ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের প্রবেশপথে হাউস বিল্ডিং বাস স্ট্যান্ড এবং বাহিরপথে আজমপুর বাস স্ট্যান্ড পর্যন্ত গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। গ্যাস লাইনের মেরামত সম্পন্ন হলে আবার চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ফায়ার সার্ভিসের উত্তরা স্টেশনের ইনচার্জ শফিকুল ইসলাম  জানান, রাত ৯টার দিকে খবর পেয়ে উত্তরা ফায়ার স্টেশনের টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন। তারা তিতাস গ্যাসকে লাইনের ছিদ্র মেরামতে সহযোগিতা করছেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com