সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২:৫৯ অপরাহ্ন

কালিয়াকৈরে রাতে আসলেন স্বামী, সকালে পাওয়া গেল স্ত্রীর লাশ

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: গাজীপুরের কালিয়াকৈরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে স্বামী পালিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করছেন নিহতের পরিবার। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

শুক্রবার উপজেলার হিজলহাটী এলাকায় রাতের কোনো একসময় খুন হলেও শনিবার দুপুরে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়। শনিবার বিকালে নিহতের বাবা নুর হোসেন বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহত শামীমা আক্তার সাথী (২২) যশোর জেলার অভয় নগর পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের নূর হোসেনের মেয়ে। আর স্বামী সালমান বিশ্বাস (৩০) রাজবাড়ী জেলার পাংসা থানার খামারডাঙ্গা এলাকার সাত্তার বিশ্বাসের ছেলে।

পুলিশ জানায়, কালিয়াকৈর উপজেলার হিজলহাটী এলাকায় শওকত হোসেনের বাসায় ভাড়া থেকে স্থানীয় গার্মেন্টসে চাকরি করত স্ত্রী শামীমা। আর স্বামী সালমান তার নিজ এলাকায় দেশের বাড়ি থাকত। সালমান প্রতি মাসে মাসে ৩-৪ বার স্ত্রী শামীমার কাছে আসত আর দু-একদিন থেকে চলে যেত। প্রতিবারের মতো শুক্রবার রাতেও স্ত্রীর কাছে আসে স্বামী সালমান।

পরদিন শনিবার সকালে শামীমার ঘুম থেকে ওঠতে দেরি দেখে পাশের রুমের হাসি আক্তার শামীমাকে ডাকতে যায়। রুমে যেতেই দেখে দরজা খোলা আর ভেতরে পড়ে রয়েছে শামীমা।

শামীমার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে কাছে গিয়ে জিহ্বা কামড় দেয়া দেখে ভয় পেয়ে চিৎকার দিয়ে দৌড়ে বের হয়। পরে প্রতিবেশীরা এসে থানা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের বাবা নুর হোসেন জানান, রাতের কোনো একসময়ে আমার মেয়ে শামীমাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়েছে সালমান।

কালিয়াকৈর থানার এসআই মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com