শুক্রবার, ১৪ জুন ২০১৯, ১২:৪০ অপরাহ্ন

হাতিরঝিলে নকশাবহির্ভূত স্থাপনা নিয়ে রুল দুই মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: হাতিরঝিল-বেগুনবাড়ি প্রকল্পের নকশা বহির্ভূত স্থাপনা নিয়ে হাইকোর্টের জারি করা রুল দুই মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছে আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে ওই এলাকায় মূল নকশার বাইরে থাকা স্থাপনা সাতদিনের মধ্যে ভেঙে ফেলা বা অপসারণের জন্য হাইকোর্ট যে নির্দেশনা দিয়েছিল তার ওপর স্থিতাবস্থা জারির আদেশ বহাল রেখেছে সর্বোচ্চ আদালত। হাতিরঝিল এলাকায় ১২ ব্যবসায়ীর করা লিভ টু আপিলের শুনানি নিয়ে দায়িত্বরত প্রধান বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর নেতৃত্বে গঠিত ছয় বিচারপতির আপিল বেঞ্চ গতকাল এ আদেশ দেয়। আদালতে ব্যবসায়ীদের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। রিট আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। আদেশের পর খুরশিদ আলম খান বলেন, চেম্বার আদালত হাইকোর্টের ওই আদেশে স্থিতাবস্থা দিয়েছিল, সেটি বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। আর হাইকোর্টের ওই বেঞ্চের জারি করা রুল দুই মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন।

‘নিষ্ক্রিয় ভূমিকায় রাজউক’ শিরোনামে গত ১লা আগস্ট একটি জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি যুক্ত করে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে রিট আবেদন করা হয়। রিটের শুনানি নিয়ে হাতিরঝিল বেগুনবাড়ি প্রকল্পের নকশা বহির্ভূত স্থাপনা আদেশের ৭ দিনের মধ্যে অপসারণ বা ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয় বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। একই সঙ্গে হাতিরঝিল-বেগুনবাড়ি প্রকল্পে লে-আউট প্ল্যানের বাইরে থাকা স্থাপনা নির্মাণ বন্ধে এবং লে-আউট প্ল্যান অনুসারে হাতিরঝিল-বেগুনবাড়ি প্রজেক্টকে রক্ষা করার জন্য কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে আদালত। হাইকোর্টের ওই আদেশের পর হাতিরঝিলের ১২ ব্যবসায়ী রিট মামলাটিতে পক্ষভুক্ত হওয়ার আবেদনের পাশাপাশি ওই আদেশের ওপর স্থিতাবস্থা চেয়ে আবেদন করেন। শুনানি নিয়ে চেম্বার আদালত স্থিতাবস্থা ও লিভ টু আপিলের আদেশ দেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com