সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৪:২০ অপরাহ্ন

তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করল পাকিস্তান

পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও তাইওয়ান প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েন (বাঁ থেকে)

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: তাইওয়ানের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ও সহযোগিতা ছিন্ন করল পাকিস্তান।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দফতরের এক লিখিত নির্দেশে পাকিস্তানের সব দফতরকে তাইওয়ানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার কথা বলা হয়েছে।

ইমরান খানের আসন্ন চীন সফরের আগে এমন নির্দেশনা জারি করল পাকিস্তান।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চীনের সঙ্গে সম্পর্ক আরও জোরদার করতে তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে ইমরান খানের সরকার।

কেননা বেশ কয়েক বছর ধরে চীন-তাইওয়ান সম্পর্কে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

২০০০ সালে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট হন চেন শুই বিয়ান। ২০০৪ সালে তিনি ঘোষণা দেন যে তাইওয়ান চীন থেকে আলাদা হয়ে সম্পূর্ণ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চায়।

তার এ অবস্থান চীনকে ভীষণ রুষ্ট করে। চীন তাইওয়ানকে নিজের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে মনে করে। এ লক্ষ্যে ২০০৫ সালে তড়িঘড়ি করে এক আইন পাস করে চীন।

যাতে বলা হয়, তাইওয়ান যদি চীন থেকে আলাদা হওয়ার চেষ্টা করে, সেটি ঠেকাতে চীন প্রয়োজনে শক্তি প্রয়োগ করবে।

তাইওয়ানের বর্তমান প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েন ক্ষমতাগ্রহণের পর চীন-তাইওয়ান সম্পর্কে আরও অবনতি ঘটে।

কেননা তিনিও চীন থেকে তাইওয়ানকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন করে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণা করতে চান।

এ কারণে সম্প্রতি তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষাকারী দেশগুলোর সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করবে বলে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করে ঘোষণা করে চীন সরকার।

বেইজিংয়ের এ ঘোষণার পরই পাক সরকার তাইওয়ানের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ও সহযোগিতা ছিন্ন করার ঘোষণা দিল।

উল্লেখ্য, ৩ নভেম্বর তিন দিনের সফরে বেইজিং যাচ্ছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। সেখানে পাকিস্তানে চীনের বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার বিষয়ে চীনা নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করবেন ইমরান খান।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com