রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:৫৩ অপরাহ্ন

সুন্দরবনের জন্য বৈশ্বিক সংহতি পালন

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ডাউকি-উমগট নদী তীরে সুরমা রিভার ওয়াটারকিপারের উদ্যোগে সুন্দরবনের জন্য বৈশ্বিক সংহতি’ (Global Solidarity for Sundarban) কর্মসূচি পালন করা হয়েছে । গতকাল ১০ নভেম্বর শনিবার সুন্দরবন বিনাশী রামপাল কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ উন্নয়নের নামে বন-বিধ্বংসী বিভিন্ন অপকর্মের প্রতিবাদে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের ওয়েস্ট খাসিহিল জেলার সোনাং পেডাং গ্রামে ডাউকি-উমগট নদী তীরে সুরমা রিভার ওয়াটারকিপারের পক্ষ থেকে সুন্দরবনের জন্য বৈশ্বিক সংহতি প্রকাশ করা হয় ।

সুরমা রিভার ওয়াটারকিপারের পক্ষ থেকে প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তীতে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), সিলেট শাখার সাধারণ সম্পাদক ও সুরমা রিভার ওইয়াটারকিপার আব্দুল করিম কিম জানান, পৃথিবী বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন । যা প্রাকৃতিক বিস্ময়াবলীর অন্যতম হিসাবে বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ ।

সেই সুন্দরবন আজ হুমকির সম্মুখীন । সুন্দরবন বিনাশী রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প ভয়ঙ্কর সর্বনাশা প্রকল্প। এই প্রকল্প দেশের বর্তমান ও ভবিষ্যতের কোটি কোটি মানুষের জন্য একটি জীবন-মরণ প্রশ্ন। প্রাণ প্রকৃতি ধ্বংসকারী রামপাল প্রকল্প সহ সুন্দরবন বিনাশী সকল উন্নয়ন কার্যক্রম অবিলম্বে বন্ধ করা প্রয়োজন । সুন্দরবনের জন্য ক্ষতিকর উন্নয়ন প্রকল্পের বিরুদ্ধ্যে সংগ্রামরত জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ১০ নভেম্বর সুন্দরবনের জন্য বৈশ্বিক সংহতি প্রকাশের আহ্বানে সাড়া দিয়ে সুরমা রিভারওয়াটার কিপারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তবর্তী ডাউকি-উমগট নদী তীরে ‘বৈশ্বিক সংহতি’ প্রকাশ করা হয় । এতে অংশগ্রহণ করেন কবি সজল ছত্রী, পরিব্রাজক বিনয় ভদ্র, আইনজীবী বুলবুল আহমেদ পান্না, চারুশিল্পি সৈয়দা সুলতানা সরদার, পেশাজীবি আরিফা সুলতানা, এমডি জাকারিয়া ভুইয়া ও শরিফ আহমেদ রাব্বি ।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com