শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন

মনোনয়ন ফরম বিক্রির শেষ দিন: নয়াপল্টন কার্যালয়ে উপচেপড়া ভিড়

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিক্রির ৫ম এবং শেষ দিন আজ।

এ উপলক্ষে শুক্রবার সকাল থেকেই সরগরম নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়।

শেষ দিনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের চেয়ে জমা দিতেই বেশি ব্যস্ত থাকতে দেখা গেছে নেতাকর্মীদের।

দুপুর ১২টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে চার হাজার ২১৬টি। আর জমা পড়েছে এক হাজার ৮০০রও বেশি।

নয়াপল্টনে দেখা গেছে, মনোনয়নপ্রত্যাশীরা নিজ নিজ কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন। এ সময় কর্মী-সমর্থকরা স্লোগান দিচ্ছেন। স্লোগানে স্লোগানে মুখ নয়াপল্টন কার্যালয়।

ধানের শীষ হাতে নিয়ে দলীয় চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে স্লোগান দিয়ে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহকারী ও জমা দিতে আসা নেতাদের কর্মী-সমর্থকরা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ভিড় জমিয়েছেন।

আজ রাজধানীর সড়ক কিছুটা ফাঁকা থাকায় বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীর জনসমাগমে নয়াপল্টনে কোনো যানজটও দেখা দেয়নি।

শান্তিপূর্ণভাবে চলছে মনোনয়ন ফরম কেনা ও জমাদানের শেষ দিনের কার্যক্রম।

সকাল ১০টা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ৯টা থেকেই জমা নেয়া শুরু হয় এবং ১০টা নাগাদ অর্ধশতাধিক মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে বলে জানা গেছে।

বিকাল ৪টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলার কথা রয়েছে। তবে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সূত্রে জানা গেছে, সময় কিছুটা বাড়ানো হতে পারে। আজ রাত নাগাদ এটি চলতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বুধবার মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমা নেয়ার তৃতীয় দিনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। রক্তাক্ত হয়ে পড়ে নয়াপল্টন ও এর আশপাশ এলাকা।

এ ঘটনায় তৃতীয় দিনের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও জমা নেয়ার কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয়। পুলিশ কয়েকশ বিএনপি নেতাকর্মীর নামে মামলা করে।

তবে গতকাল বৃহস্পতিবার শান্তিপূর্ণভাবে চলে মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমাদানের কাজ।

গত চার দিনে চার হাজারের বেশি মনোনয়নপ্রত্যাশী দলের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। প্রথম দিন এক হাজার ৩২৬, দ্বিতীয় দিন এক হাজার ৮৯৬ এবং তৃতীয় ও চতুর্থ দিন বৃহস্পতিবারসহ বিক্রি হয়েছে চার হাজারের বেশি।আর গতকাল পর্যন্ত জমা হয়েছে এক হাজার ২৫৫টি মনোনয়ন ফরম।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com