রবিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

ফেসবুকের কারণে ৯৫ ভাগ বিবাহবিচ্ছেদ হচ্ছে: হানিফ

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, ফেসবুকের কারণে ৯৫ ভাগ বিবাহবিচ্ছেদ হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর আজিমপুরে ১৪ দল আয়োজিত মাদকমুক্ত সমাজ ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আয়োজিত অভিভাবক সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

হানিফ বলেন, শতকরা ৯৫ ভাগ বিবাহবিচ্ছেদ ফেসবুকের কারণে হচ্ছে। ছেলে-মেয়েরা পড়াশোনায় মনোযোগ না দিয়ে ফেসবুকের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। অভিভাবকরা যারা এখানে আছেন আপনারা ছেলে-মেয়েদের স্মার্ট ফোন কিনে দেয়ার আগে এই বিষয়গুলো চিন্তা করবেন।

তিনি বলেন, তাছাড়া ফেসবুকে চ্যার্টিংয়ের কারণে স্বামী স্ত্রীকে আর স্ত্রী স্বামীকে সন্দেহ করছে। নিজেদের মধ্যে কলহ দিন দিন বাড়ছে। এক পরিবারে পাঁচজন সদস্য থাকলে পারিবারিক কথা আর হয় না, সেখানে দেখা যায় সবাই ফেসবুক নিয়ে বসে আছে। বছরের ৩০ হাজার বিভাহ বিচ্ছেদ হলে এর মধ্যে শতকরা ৯৫ ভাগ বিভাহ বিচ্ছেদ হচ্ছে এই ফেসবুকের কারণে।

হানিফ বলেন, ফেনীর ছাত্রী নুসরাতের হত্যার সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তি দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হবে যাতে ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা আর না ঘটে।

সড়ক দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যিনি ড্রাইভিং লাইসেন্স দেন, রোড পারমিট দেন সড়ক দুর্ঘটনার জন্য তারাও দায়ি। কারণ যে চালককে লাইসেন্স দেয়া হয় তাদের অধিকাংশই অশিক্ষিত ও অর্ধ শিক্ষিত। কোনও আইন জানেনা, নুন্যতম জ্ঞান নেই। তাদের লাইসেন্স দেয়ার কারণে এই সমস্যা হয়। প্রত্যেক দুর্ঘটনার পর যানবাহনের মালিককেও আসামি করে মামলা দিতে হবে। তাহলে মালিকরা আর অদক্ষ চালককে নিয়োগ দেবে না।

এছাড়াও সমাবেশে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কেন্দ্রীয় ১৪ দলের দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন জাসদের কার্যকরি সভাপতি মঈনুদ্দিন খান বাদল, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতসহ অভিভাবক ও শিক্ষক প্রতিনিধিরা।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com