বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন

প্রাণের তিন পণ্যসহ ৫২ ভেজাল পণ্যের বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকারের অভিযান

ভেজাল পণ্যের বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকারের অভিযান। ছবি সংগৃহীত

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর উপাদান থাকার বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় প্রাণের গুঁড়া হলুদ, কারি পাউডার, লাচ্ছা সেমাইসহ বিভিন্ন কোম্পানি ও ব্র্যান্ডের ৫২টি খাদ্য পণ্যের বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকারের অভিযান শুরু হয়েছে।

শনিবার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের নেতৃত্বে মূল দলটি অভিযান চালায় শনিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, ধানমন্ডি এবং নিউ মার্কেট এলাকায়।

বিভিন্ন বাজার ও দোকানে এ অভিযান পরিচালনা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ৭টি দল।

অভিযানে আরও ছিলেন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মাসুম আরেফিন, আফরোজা রহমান এবং ইন্দ্রাণী রায়সহ ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা।

অভিযানে কারওয়ান বাজার ও নিউ মার্কেটের কয়েকটি দোকানে নিষিদ্ধ তালিকায় থাকা কয়েকটি পণ্য বিক্রির জন্য মজুদ রাখা হয়।

এর মধ্যে মোল্লা সল্ট এবং ডুডল ব্র্যান্ডের নুডলস অন্যতম। এ সময় ভেজাল পণ্য বিক্রি করায় কারওয়ান বাজারের নাসির স্টোরকে ১০ হাজার টাকা এবং নিউ মার্কেটে জব্বার স্টোর ও বিসমিল্লাহ স্টোরকে দুই হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

বাজার ব্যবসায়ীরা জানান, বিক্রি নিষিদ্ধ বেশিরভাগ পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ফেরত নিয়ে গেছে।

তবে রোববার থেকে এসব পণ্য বিক্রি করা হলে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রয়োগ করা হবে বলে জানান ভোক্তা অধিকারের কর্তারা। দরকার হলে কারাদণ্ড দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, বিএসটিআই এবং নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ গণমাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে গণবিজ্ঞপ্তি প্রচার করে এসব পণ্য বিক্রির জন্য নিষেধ করেছে। অভিযানে বেশিরভাগ জায়গায় আমরা এসব পণ্য পাইনি। কিছু জায়গায় পেয়েছি, সেখানে অল্প জরিমানা করেছি।

তিনি বলেন, রোববার ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে আমাদের কার্যালয়ে একটি সভা হবে। তারপরেও যদি এসব পণ্য বিক্রি হয়, তাহলে আইনের কঠোর প্রয়োগ করা হবে।

তিনি আরো বলেন, নিষিদ্ধ পণ্যগুলো ছাড়াও বাজার মনিটরিং-এর নিয়মিত কার্যক্রম পরিচালনা করে মনিটরিং টিম।

এ সময় আমদানি অনুমোদন না থাকলেও বিদেশি পণ্য অনুমোদন এবং সেগুলোতে প্রয়োজনীয় তথ্য সম্বলিত লেবেল না থাকায় দুটি প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করাসহ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন লঙ্ঘনের অপরাধে মোট ১৪টি প্রতিষ্ঠানকে ৬১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সম্প্রতি বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর উপাদান থাকার বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় প্রাণের গুঁড়া হলুদ, কারি পাউডার, লাচ্ছা সেমাইসহ বিভিন্ন কোম্পানি ও ব্র্যান্ডের ৫২টি খাদ্যপণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে এসব খাদ্যপণ্য বিক্রি ও সরবরাহে জড়িতদের বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের প্রতি এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com