সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:২৩ অপরাহ্ন

জাপান বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে হচ্ছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ক্যান্সার হাসপাতাল

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: এবার প্রধানমন্ত্রীর জাপান সফরে জাপান গ্রিন হসপিটাল, আইচি হসপিটাল লিমিটেড এবং এথিক্স অ্যাডভান্সড টেকনোলোজি লিমিটেড (ইএটিএল) একটি ক্যান্সার হাসপাতাল, একটি নার্সিং কলেজ এবং একটি ক্যান্সার রিসার্চ সেন্টার নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

দুই দেশের এই চুক্তির মাধ্যমে হাসপাতালটি দেশবাসীর অনেক কষ্ট লাঘব করবে বলে আশা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও জাপানে অবস্থিত বাংলাদেশের অ্যামবাসাডর রাবাব ফাতিমা উপস্থিত ছিলেন।

ত্রি-পক্ষীয় চুক্তিটি স্বাক্ষর করেন জাপান গ্রিন হসপিটালের পক্ষে হিরোয়িকি কোবায়িশি, আইচি হসপিটাল লিমিটেপের ড. মোয়াজ্জেম হোসেন ও ইএটিএল এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর এমএ মুবিন খান।

এই চুক্তির মাধ্যমে অচিরেই দেশবাসী ক্যান্সারের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর চিকিৎসা পাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

এই চুক্তির আওতায় জাপান বাংলাদেশে একটি ক্যান্সার হাসপাতাল, একটি নার্সিং কলেজ এবং একটি মেডিকেল টেকনোলোজি প্রতিষ্ঠান রিসার্চ সেন্টার প্রতিষ্ঠার জন্য ২০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এই ক্যান্সার হাসপাতালে জাপানের অত্যাধুনিক প্রযুক্তি প্রোটন থেরাপি দিয়ে ক্যান্সার রোগের চিকিৎসা করা হবে, যা এখন পর্যন্ত ব্যাংকক ও সিঙ্গাপুরেরও কোন হাসপাতালে নেই। এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি প্রোটন থেরাপি জাপানে ক্যান্সার চিকিৎসায় বিরাট পরিবর্তন দেখিয়েছে, যা এই হাসপাতালের মাধ্যমে প্রথমবারের মত বাংলাদেশে নিয়ে আসা হবে। এই প্রযুক্তি কোন রকম পার্শপ্রতিক্রিয়া ছাড়া ক্যান্সার টিউমারের ওপর প্রভাব ফেলতে সক্ষম। মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ধীরে ধীরে সব ধরনের ক্যান্সাসের জীবাণুকে ধ্বংস করতে কাজ শুরু করে প্রোটন থেরাপি।

জাপান গ্রিন হসপিটাল, একই গ্রুপ শিপ আইচি মেডিকেল সার্ভিস লিমিটেডের মাধ্যমে ইতোমধ্যে বাংলাদেশে দেশের হার্ট ও কিডনি রোগের চিকিৎসায় ১০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। যার আওতায় দেশের উত্তরায় একটি হাসপাতাল নির্মাণাধীন। সেটি ২০২০ সালের জানুয়ারিতে উদ্বোধন করা হবে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com