ইসির সংলাপে ৬০ জনকে আমন্ত্রণ

../news_img/53732 mri nu.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: দেশে শীর্ষ স্থানীয় সুশীল সেবক হিসেবে আছেন এমন ৬০ জনকে নির্বাচন কমিশনে সংলাপে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এ কথা জানিয়েছেন। রোববার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাকিদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি কথা জানান।

মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, ‘গত ১৬ জুলাই বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ করে। এই কর্মপরিকল্পনায় সাতটি বড় বিষয়ের ওপর কার্যক্রম নেওয়ার পরিকল্পনা করে এবং এর মধ্যে বড় একটা বিষয় ছিল সংলাপ। ৩১ জুলাই সকাল ১১টায় নির্বাচন ভবণের সম্মেলন কক্ষে সুশীল সমাজের অংশগ্রহণের মাধ্যমে এই সংলাপ শুরু হতে যাচ্ছে। চিঠি ইতোমধ্যে জারি করা হয়ে গেছে। দুই দিনের মধ্যে সবার হাতে চিঠি পৌঁছে যাবে।’

সুশীল সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে কারা থাকবেন সংলাপে জানতে চাইলে সচিব বলেন, ‘যাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে তাদের মধ্যে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা, অর্থনীতিবীদ, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী, কলামিস্ট, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, শিক্ষক, সিভিল সার্ভিসে যারা প্রবীণ এবং দীর্ঘদিন মাঠপর্যায়ে কাজ করেছেন এমন সচিব বা রাষ্ট্রদূত আছেন।’

সংলাপের বিষয়বস্তু ঠিক করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না, এটা এখনো ঠিক করা হয়নি। আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন করা। সেই আঙ্গিকেই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।’

রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সুশীল সমাজ ছাড়া বাকিগুলোর তারিখ এখনো ঠিক করা হয়নি। রাজনৈতিক দলের সঙ্গে কবে সংলাপ করা হবে, আগামী সপ্তাহে হয়তো তার তারিখ নির্ধারণ করা হবে।’

সংলাপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সংলাপের জন্য সংলাপ হলে তো এটি করে লাভ নেই। আমরা প্রতিটি সংলাপের রেকর্ড নোট রাখব। সংলাপের পরে এই রেকর্ড নোটগুলো একত্রিত করে প্রতিবেদন হবে এবং প্রতিবেদনে যে সুপারিশগুলো গ্রহণ করার মতো সে অনুসারে পরবর্তী সময়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’