কেন এই স্কুলে হেলমেট পরে ক্লাসে আসছেন শিক্ষকরা?

../news_img/54071mm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক: স্কুল, ক্লাসরুম বলতেই চোখের সামনে যে চেনা দৃশ্য ভেসে ওঠে, তেলেঙ্গানার সঙ্গারেড্ডি জেলার শঙ্করাপেটা সরকারি স্কুলের অবস্থা কিন্তু তেমনটা নয় মোটেও। স্কুলবাড়িটির দশা একেবারেই জরাজীর্ণ। পড়ুয়ারা ক্লাসে এলেই ভয়ে সিঁটিয়ে থাকেন। এই বুঝি ছাদ মাথায় ভেঙে পড়ল।

আর এই নরকযন্ত্রণা নিয়েই প্রত্যেকদিন স্কুলে আসছে আশেপাশের গ্রামের প্রায় ৬০০ জন পড়ুয়া। বর্ষায় ক্লাসরুমের অবস্থা যেন আরও


শোচনীয় হয়ে উঠেছে। ক্লাসের দেওয়ালের গা থেকে খসে খসে পড়ছে সিমেন্ট-পলেস্তারা। মাথার উপর ঝুলছে প্রায় ভেঙে পড়া সিলিং। বৃষ্টি হলে ছাদ চুঁইয়ে জল পড়া যেন নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। পড়ুয়ারা বলছে, ‘ক্লাসের পড়ার দিকে মন দেওয়া যায় না। সবসময় ভয় হয় এই বুঝি মাথায় ছাদ ভেঙে পড়ল।’

শিক্ষকরাও কার্যত দিশাহীন। বারবার প্রশাসন ও কর্তৃপক্ষকে বলা সত্ত্বেও কোনও স্থায়ী সুরাহা মেলেনি। অন্তত তিনবছর ধরে তাঁরা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে দরবার করলেও স্কুল বা ক্লাসরুমের হাল ফেরেনি। তাই বাধ্য হয়ে এবার নয়া অভিনব পন্থা অবলম্বন করেছেন শঙ্করাপেটা সরকারি স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীরা। মাথায় হেলমেট পরে ক্লাসে আসছেন তাঁরা। তাঁদের একাংশের বক্তব্য, ‘যে রাজ্যের সরকার ডিজিটাল ক্লাসরুম প্রকল্পের প্রচার চালাচ্ছে, তারা সামান্য একটি স্কুলের ছাদটুকু সরিয়ে দিতে পারছেন না?’