হবিগঞ্জে মানুষের জানমাল রক্ষায় দখলবাজদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও নদী খননের দাবিতে বাপার গণসমাবেশ

../news_img/53673 mri nu.jpg

মোঃ রহমত আলী, হবিগঞ্জ থেকে :: খোয়াই নদী থেকে হবিগঞ্জের লক্ষ লক্ষ মানুষ কিভাবে তাদের জানমাল রক্ষা করবে এ প্রশ্ন এখন সকল নাগরিকের। এ লক্ষ্যে খোয়াই নদী খনন, বাঁধ মেরামত ও নদীতীরের দখলবাজদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার দাবিতে গণসমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। শনিবার সকাল ১১টায় শহরের চৌধুরী বাজার খোয়াই ব্রিজ পয়েন্টে  উক্ত গণসমাবেশে অনুষ্টিত হয়। বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন-বাপা হবিগঞ্জ শাখা, মার্চেন্ট এসোসিয়েশন ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার আয়োজিত গণসমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাপা জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক মোঃ ইকরামুল ওয়াদুদ।

গণসমাবেশে সূচনা বক্তব্য রাখেন বাপা জেলা সাধারণ সম্পাদক ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার তোফাজ্জল সোহেল।

এ সময় বক্তারা বলেন, উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে পানি উপচে গত ১৯ ও ২০ জুন খোয়াই বাঁধ ভেঙে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছিল। এমন আশংকা প্রতি বর্ষায়ই সৃষ্টি হতে পারে। তাই নদীটিকে বাল্লা থেকে সুজাতপুর পর্যন্ত খনন করতে হবে। এছাড়া চুনারুঘাট থেকে হবিগঞ্জ শহরের গরুবাজার পর্যন্ত বাঁধ মেরামত ও প্রয়োজনে উঁচু করতে হবে। রামপুর থেকে গরুবাজার পর্যন্ত বাঁধের উভয় দিকে গাইডওয়াল নির্মাণ করতে হবে এমন দাবী জানান।

এতে  অতিথি ছিলেন হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবিদুর রহমান, মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের আহবায়ক ফজলুর রহমান লেবু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ি জগদীশ মোদক, শংকর পাল, বাপা সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম ও ব্যকস্ সভাপতি শামসুল হুদা। সভায় বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক াবদুজ জাহের, ব্যকস এর সাবেক সভাপতি আলাউদ্দিন আহমেদ, কমরেড হীরেন্দ্র দত্ত, রোটারিয়ান ফনিভূষণ দাশ, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী মমিন, ব্যবসায়ি আলহাজ¦ ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, হবিগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ নাহিজ, এডভোকেট জুনায়েদ আহমেদ, ব্যবসায়ি মোঃ আতাউর রহমান, হিরাজ মিয়া, ক্রীড়া সংগঠক হুমায়ুন খান, বাপা জেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক হারুন সিদ্দিকী, রোটারিয়ান নোমান মিয়া, নাট্যকর্মী মুক্তাদির হোসেন, আজহারুল ইসলাম চৌধুরী মুরাদ, সংস্কৃতি কর্মী মনুসর আহমেদ, ওসমান গনি রুমী, পলাশ রায় তুষার প্রমুখ। গণসমাবেশ পরিচালনা করেন সমাজকর্মী আব্দুর রকিব রনি।