আগামীকাল শাহ এ এম এস কিবরিয়ার স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ করেবন পরিবার

../news_img/kibria.jpg

মৃদুভাষণ রির্পোট:: বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে এবং জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল অবদানের জন্য সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়াসহ আটজন বাংলাদেশ সরকারের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা ‘স্বাধীনতা পুরস্কার’ পাচ্ছেন এ বছর।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ  এ বছরের পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের নাম চূড়ান্ত করে। আগামী কাল বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিবরিয়া পবিরাবের হাতে পুরুষ্কার তুলে দিবেন।

শাহ এ এম এস কিবরিয়া বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় ১৯৭১ সালের ৪ আগস্ট ওয়াশিংটনে পাকিস্তান  দূতাবাস ত্যাগ করে মুজিবনগর সরকারের  প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেন। ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ মিশন সংগঠনে তিনি সক্রিয় ভূমিকা রাখেন এবং বহির্বিশ্বে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত গঠনে কাজ করেন।

তিনি মার্কিন সিনেটর ও কংগ্রেস সদস্য এবং ওয়াশিংটনের সিনিয়র কলামিস্টদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের যৌক্তিকতা তুলে ধরেন। সে সময়ে তিনি ওয়াশিংটন থেকে একটি বুলেটিন প্রকাশ করতেন, যার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় বাংলাদেশের যুদ্ধপরিস্থিতি, মুক্তিযোদ্ধাদের কার্যক্রম এবং যুদ্ধকালীন অবস্থায় হানাদার বাহিনী কর্তৃক অবরুদ্ধ বাংলাদেশের জনগণের প্রকৃত অবস্থা সম্পর্কে অবহিত হতে পারত।

আর তাই ১৯৭১ সালে ওয়াশিংটনে পাকিস্তান দূতাবাসে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত গঠনের জন্য সাবেক সফল অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া এ বছর মরনোত্তর স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন।

উল্লেখ্য যে শাহ এ এম এস কিবরিয়া মৃদুভাষণ এর প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক।