কিবরিয়া হত্যার সুষ্ট বিচারের দাবিতে শান্তির স্বপক্ষে নীলিমা ৩১ শে মার্চ - ড. রেজা কিবরিয়া

../news_img/21427 mri n j h.jpg

শাহাবুদ্দিন শুভ ::  এক এক করে এগার বছর আমার এই বনানী কবর স্থানে এসেছি। দু:খ ভরা মন নিয়ে আমার মা আসমা কিবরিয়া না ফেরার দেশে চলে গেলেন স্বামী হত্যার বিচার না দেখে। তাই আমরা পরিবারের পক্ষ থেকে মার্চ থেকে আবারও ‘‘শান্তির স্বপক্ষে নীলিমা’’ কর্মসূচি শুরু করতে যাচ্ছি জানালেন শাহ এ এম এস কিবরিয়া পুত্র ড. রেজা কিবরিয়া।

আজ সকাল সাড়ে ৯টায় সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়ার ১১ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে বনানী কবরস্থানে পুষ্পস্তক অর্পন ও কবর জিয়ারতের পর কিবরিয়া পুত্র  ড. রেজা কিবরিয়া আরও বলেন আমাদের এই কর্মসূচি সরকার বা কোন দলের বিপক্ষে নয় সুষ্ট বিচারের পক্ষে। আমরা জ্বালাও পোড়াও  কর্মসূচিতে যেথে চাই না । যারা বিচার বঞ্চিত বা সুষ্ট বিচার পাননি তাদের  নিয়ে পূর্বের ন্যায় প্রতিমাসের শেষ বৃহস্পাতিবার  নীল কাপড় পড়ে রাস্তায় শান্তি পূর্ন অবস্থান কর্মসূচি করব। আর তার শুরু করব ৩১ শে মার্চ বিকাল ৪ টায়  জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে মানিক মিয়া এভিনিউ তে। ড. রেজা এব্যাপারে সবার সহযোগীতা চান এবং যারা বিচার বঞ্চিত তারাও একই ভাবে একই সাথে নীলিমায় অংশ গ্রহণ করতে আহ্বান জানান। 
ঢাকায় বনানী কবরস্থানে মরহুমের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান কিবরিয়া পরিবারের সদস্য ও শুভাকাংখিরা।

উল্লেখ্য ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারে ঈদ-পরবর্তী এক জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন শাহ এ এম এস কিবরিয়া। জনসভা শেষে তাঁর ওপর গ্রেনেড হামলা করা হয়। এতে কিবরিয়াসহ পাঁচজন প্রাণ হারান। আহত হন আওয়ামী লীগের অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী।

শাহ কিবরিয়া ১৯৫৪ সালে পাকিস্তান সুপিরিয়র সার্ভিস পরীক্ষায় প্রথম স্থান অর্জন করে পাকিস্তান ফরেন সার্ভিসে যোগ দেন। তিনি ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের পক্ষে বিদেশে জনমত গঠন করেন। দেশ স্বাধীন হলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পুনর্গঠনের কাজে যোগ দেন এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জাতিসংঘের এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কমিশনের (এসকাপ) প্রধান নির্বাহী ছিলেন।

শাহ কিবরিয়া ১৯৯৬ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান ছিলেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের অর্থমন্ত্রী নিযুক্ত হন। ২০০১ সালে তিনি হবিগঞ্জ-৩ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।