কালের স্বাক্ষী আজমিরীগঞ্জের জলসুখা কালভৈরব মন্দির

../news_img/37000 mri nu i y i.jpg

উত্তম কুমার পাল হিমেল, জলসুখা, আজমিরীগঞ্জ থেকে ফিরে :: হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা গ্রামের কাল ভৈরব মন্দিরটি কালের স্বাক্ষী হয়ে রয়েছে। আজমিরীগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কের পাশে অবস্থিত প্রায় আড়াই শত বছর পূর্বে এখানে কালভৈরবের গাছ স্থাপন করে সেবাপূজা চলে আসলেও ৭০ বছর পূর্বে গত ১৩৫২ বাংলার ২রা কার্তিক এ মন্দিরে স্থায়ীভাবে  পাথরের বড় মুর্তি প্রতিস্থাপন করে মন্দির স্থাপন  করা হয়েছে। যা দর্শন করার জন্য দেশের  বিভিন্ন স্থান থেকে  অনেক দর্শনার্থী ছুটে আসেন। দর্শনার্থীদের সাথে আলাপকালে জানাযায় দেশের খুব কম স্থানই আছে যেখানে এ রকম বড় ও উচু আকারের মুর্তি স্থাপন করা হয়। লোকমুখে শোনা যায় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে পাকিস্তানী বাহিনী এ কালভৈরবটি ধ্বংস করার চেষ্টা করলেও তা ধ্বংস করতে পারেনি। এর পর থেকে এ মন্দিরের ঐতিহ্য লোক মুখে প্রচার হলে এখানে দেশের বিভিন্ন্  মানুষের মানস প্রদানসহ দর্শনের জন্য ভীড় বেড়ে যায় ।

কালভৈরব মন্দিরের সেবায়েত প্রাণকান্ত ভট্টাচার্য্য এ প্রতিনিধিকে বলেন, জাগ্রত কালভৈরব এ মন্দিরে বহু দিন আগে থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভক্তরা এসে বিভিন্ন মানস প্রদান করেন। প্রতি শনি ও মঙ্গলবার এ মন্দিরে পূজা অর্চনা করে দুপুর পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য খোলা রাখা হয়। আর অন্যান্য দিন দুপুর ১২ টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়। এছাড়া প্রতি বছর পৌস সংক্রান্তির তিথিতে ২ দিন ব্যাপী মেলা অনুষ্টিত হয়। এতে সহস্রাধিক ভক্তবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন।