ক্রিকেটার আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

../news_img/53932mm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: যৌতুক আইনে দায়ের করা মামলায় ক্রিকেটার আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

রোববার অভিযোগ গঠনের (চার্জশিট) ধার্য দিনে আদালতে উপস্থিত না থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকা মহানগর হাকিম জাকির হোসেন টিপু। সানির বিরুদ্ধে নাসরিন আক্তারের যৌতুকের জন্য নির্যাতনের মামলার অভিযোগ (চার্জশিট) গঠন করা হয়। এ অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক বিচারকাজ শুরু হলো।

আরাফাত সানীর আইনজীবী মুরাদুজ্জামান বলেন, ‘মামলার চার্জ শুনানির দিন ধার্য ছিল রোববার। কিন্তু মামলার আসামি আরাফাত সানী চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত। এজন্য তিনি আদালতে হাজির হতে পারেননি। তার পক্ষে সময়ের আবেদন করা হয়। কিন্তু আদালত তা নামঞ্জুর করে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন এবং অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত, ২৩ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম রায়হানুল ইসলামের আদালতে সানীর বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করেন তার স্ত্রী নাসরিন সুলতানা। ওইদিন আদালত আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে সমন জারি করে তাকে ৫ এপ্রিল আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন। ৫ এপ্রিল ঢাকা মহানগর হাকিম নূর নবীর আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন আরাফাত সানী।

এরপর এই মামলা নূর নবীর আদালত থেকে বিচারের জন্য জাকির হোসেন টিপুর আদালতে বদলি করা হয়। মামলা বদলি হয়ে আসার পর ১৯ জুন একই আদালত আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। পরদিন আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন আরাফাত সানী। ওইদিন আদালত অভিযোগ শুনানির জন্য ১৬ জুলাই দিন ধার্য করে দেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, আরাফাত সানীর সঙ্গে ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর নাসরিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা বাসা ভাড়া নিয়ে একসঙ্গে বসবাস করেন। কিন্তু সানীর পরিবার বিয়ে মেনে নিতে চাননি। পরে সানী নাসরিনের কাছে ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন।