গ্রামের জনসংখ্যা ৬০০, ১০০ জনই তার সন্তান!

../news_img/53960mri nu i.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::গ্রামটির মোট জনসংখ্যা ৬০০ জন। এর মধ্যে ১০০ সন্তানের বাবা একজন। আর ওই ব্যক্তির স্ত্রী একডজন। এতেই সন্তুষ্ট নন ৮০ বছর বয়সী কফি আসিলেনু, তিনি চান আরও সন্তান! কফির জন্ম আফ্রিকার দেশ ঘানার একটি ছোট্ট গ্রাম আমানকরমে। এই গ্রামেই থাকেন তিনি।

বিবিসি’র খবরে বলা হয়, কফি আসিলেনুর স্ত্রী ১২ জন। আর তার সন্তান ১০০ জনের বেশি। রাজধানী আক্রা থেকে সড়কপথে আমানকরম গ্রামে যেতে সময় লাগে ৪৫ মিনিটের মতো। গ্রামের মোট জনসংখ্যা ৬০০ জনের মতো। সেই হিসাবে গ্রামটির মোট জনসংখ্যার ছয় ভাগের এক ভাগেরও বেশি মানুষ কফির পরিবারের সদস্য।

কফি বলেন, আমার কোনো ভাইবোন বা চাচা নেই। এ কারণে আমি বড় পরিবার চেয়েছি। আমি চাই মৃত্যুর পর পরিবারের সদস্যরা জাঁকজমকপূর্ণভাবে আমাকে সমাধিস্থ করুক। তিনি জানান, তার জন্মস্থানে সন্তান জন্ম দেওয়ার বিষয়টিকে গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করা হয়। এসব কারণে বেশি সন্তানের জনক হতে চেয়েছেন তিনি।

শতাধিক সন্তানের বাবা কফিকে শারীরিকভাবে এখনো শক্ত–সামর্থ্যই মনে হয়। তিনি এখানেই থামতে চান না। আরও সন্তান জন্ম দেওয়ার আশায় আছেন তিনি। সংসার বড় হওয়া সত্ত্বেও কফির ১২ স্ত্রী ভালোই আছেন। তারা সবাই সুখী।

কফির প্রথম স্ত্রী নিয়োমে আসিলেনু বলেন, ‘আমাদের বিয়ের পর তিনি আবার বিয়ে করতে চাইলেন। আমাদের সবাইকে দেখভাল করার সামর্থ্য আছে তার। সন্তানদের পড়াশোনার খরচ চালাতে পারেন। সবাই স্বাস্থ্যবান ও শক্তিশালী। তাই তার একাধিক বিয়েতে ভুল কিছু দেখছি না।’

উল্লেখ্য, ঘানায় বহুবিবাহের প্রচলন আছে। দেশটিতে বহু সন্তানকে সম্পদের প্রতীক হিসেবে দেখা হয়।