পুলিশ, রাত ও কুকুরের গল্প

../news_img/54266  mmn.jpg

আনোর হোসেন রাজু ::  রাত ৩ টায়  নাইট ডিউটি করে বাসায় ফিরছি। রাস্তার যেসব কুকুর দেখে এমনিতেই খুব ভয় পেতাম সেই কুকুরগুলো দেখলে এখন পরিচিত লাগে। মনে হয় যেন সেও যানে আমি পুলিশ। আমি তার উপকার না করি আমার দ্বারা তার অন্তত ক্ষতি হবে না। নইলে রাত দুইটার সময় আমাকে দেখে চুপচাপ দাড়িয়ে থাকা কুকুরটি কেন একই সময়ে পথচারীদের তেড়ে আসবে কামড় দিতে?

তার মানে কুকুরও কি আমাকে বন্ধু মনে করে? আমাকে যাই মনে করুক কুকুরের সাথে বন্ধু আলভি শরিফ এর একটা সেই লেভেলের জানাশোনা যে আছে তা মোটামুটি বন্ধু মহলে কারো অজানা নয়।
ইদানীং খেয়াল করলামএই প্রজাতিটার সাথে আমার কাজের কিছু মিল আছে। দিন-রাত, মেঘ-বাদল, ঝড়-বৃষ্টি, অতিবৃষ্টি-অনাবৃষ্টি, খরা আয়লা, সিডির, সুলতান রাজা মহারাজা যাই হোক না কেন রাস্তায় কেউ থাকুক বা না থাকুক আমি আর সে আছি।

এযুগের কুকুরগুলো অনেক স্মার্ট। যুগের প্রয়োজনে তারা নিজেদেরকে তৈরী করে নিয়েছে। যেমন আমি কুকুরকে রাস্তা পারাপারের সময় জেব্রাক্রসিং, ওভারব্রিজ ব্যবহার করতে দেখেছি। এসব ছাড়াও ডানে-বাঁয়ে ভাল করে দেখে রাস্তা পারাপার হতে দেখে মাঝে মাঝে অবাক হই। কারন আমাদের সমাজে অনেক ভদ্রলোক এভাবে রাস্তা পার হয়না।
এখন যদি আমি বলি এরা কুকুরের চাইতে খারাপ তাহলে হয়তো অনেকে মাইন্ড করবেন। তবে আমি কিন্তু খারাপ।

গতকাল আগ্রাবাদ মোড়ে এক কুকুরের উপর অন্য কুকুরের হামলা দেখে আরো অবাক হলাম। নিজেকে বাঁচানোর জন্য আক্রান্ত কুকুরটি খোলা পুলিশ বক্সের দিকে চলে আসলো। যতক্ষন পর্যন্ত সে এখানে ছিল অন্য কুকুরটি তাকে আক্রমণ করেনি। বক্স থেকে বের হতে একটু সামনে যেতেই আবার আক্রমণ। তবে কোনো হাতাহতের ঘটনা ঘটে নাই। কারন প্রায় দুই আড়াই ঘন্টা সে ঐখানই বসেছিল।