যুক্তরাজ্যে স্কুলের পাঠ্যবইয়ে নারীদেহের বর্ণনা নিয়ে তোলপাড়

../news_img/55255 mrin iu.jpeg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: নারীদের স্তনের দুটি কাজ। একটি হল সন্তানকে দুধ খাওয়ানো। অপরটি হল পুরুষের কাছে তাদেরকে দেখতে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তোলা। যুক্তরাজ্যের স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য লেখা একটি পাঠ্য বইয়ে নারীদেহ নিয়ে এমনই মন্তব্য করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের কিশোর বয়সী ছাত্রদের জন্য লেখা এই পাঠ্য বইটির নাম ‘গ্রোয়িং আপ ফর বয়েজ’। বইটিতে কিশোরীদের মুড, অনুভব, খাবার, ব্যায়াম, লিঙ্গ, সম্পর্কসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে নারীদের দেহেরও বর্ণনা করা হয়েছে। সেই বর্ণনাতেই স্তন নিয়ে এই আলোচনা করা হয়।

২০১৩ সালে প্রকাশিত বইটিতে বয়ঃসন্ধিতে ছেলেদের যে মানসিক ও দৈহিক পরিবর্তন ঘটে, তার বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যাও দেওয়া হয়েছে। বয়ঃসন্ধিতে পৌঁছানো ছাত্রদের জন্য পাঠ্যবইটিতে নারীদের দেহের বর্ণনায় স্তন নিয়ে এই ব্যাখ্যার নিন্দায় সরব হয় দেশটির শিক্ষামহল।

‘গ্রোয়িং আপ ফর বয়েজ’ বইটির নির্দিষ্ট ‘হোয়াট আর ব্রেস্ট ফর’ অংশের এই আলোচনা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়ও আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে।
ফেসবুক, ট্যুইটারে ব্যাপক সমালোচনার জেরে ক্ষমা চাইতে হয় বইটির প্রকাশনা সংস্থাকে। উক্ত অংশ বাদ দিয়ে বইটি নতুন করে প্রকাশের কথাও জানিয়েছে প্রকাশনা সংস্থা ‘আসবর্ন পাবলিশিং’।

সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া