ক্রিকেটার মিরাজকে নিয়ে দুঃসংবাদ

../news_img/54687 mri n k i.jpg

মৃদুভাষন ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়া সিরিজ শেষ, সামনে এবার দক্ষিণ আফ্রিকা মিশন। বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে জমজমাট টেস্ট সিরিজ শেষে দক্ষিণ আফ্রিকায়ও ভালো করার তাগিদ কাজ করছে পুরো বাংলাদেশ দলের। এর আগে ক্রিকেটার মিরাজকে নিয়ে দুঃসংবাদ

তবে আপাতত একটি শঙ্কায় চোখ বুজে থাকতে হচ্ছে ক্রিকেট সমর্থকদের। চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ ও কার্যত শেষ দিনে আঙুলে চোট পেয়েছেন তরুণ ক্রিকেটার ও জাতীয় দলের অপরিহার্য অংশে পরিণত হওয়া মেহেদী হাসান মিরাজ। তার চোট কতটা গুরুতর, তা বোঝা যায়নি এখনও। তবে গুরুতর হলে মিরাজ মিস করতে পারেন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরও। ক্রিকেট-সংশ্লিষ্টদের শঙ্কা ও দুশ্চিন্তা এ কারণেই।
 
চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে দলের বিপর্যয় সামলাতে ব্যাট করছিলেন মিরাজ। এমন সময় প্যাট কামিন্সের গতিময় বল এসে লাগে মিরাজের ডান হাতে। এতে তর্জনী ও বুড়ো আঙুলে ব্যথা পান মিরাজ। দলের হাল ধরে রাখতে ঐ অবস্থাতেই ব্যাট করে যান ইনিংসের শেষ পর্যন্ত। অন্য ব্যাটসম্যানরা সাজঘরে ফেরায় মাঠ ছাড়েন অপরাজিত থেকেই। পরবর্তীতে আর ফিল্ডিং করতে নামা হয়নি তার। তার জায়গায় ফিল্ডিং করতে মাঠে নামেন একাদশের বাইরে থাকা লিটন দাস। মিরাজের অনুপস্থিতি ভুগিয়েছে বাংলাদেশের বোলিং লাইনআপকেও।

ম্যাচ শেষে সন্ধ্যায়ই মিরাজের হাতে এক্স-রে করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিস চৌধুরী বলেন, ‘এক্স-রেতে কোনো চিড় ধরা পড়েনি। সূক্ষ্ম চিড় থাকলে সেটা এক্স-রেতে ধরা না-ও পড়তে পারে। সাধারণত দুই-তিনের মধ্যে ব্যথা ও ফোলা কমে যাওয়া কথা। যদি ৭২ ঘণ্টায় ব্যথা না সারে তবে সিটি স্ক্যান করতে হবে।’

অস্ট্রেলিয়া সিরিজ শেষে অল্প কদিনের ছুটি পাবেন ক্রিকেটাররা। ফুরফুরে মেজাজে অল্প এই কদিন কাটানোর পরই নামতে হবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের অনুশীলনে। এই মাসের শেষদিকে সফরে যাবে বাংলাদেশ, যেখানে খেলবে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-২০ ম্যাচ। চোটের কারণে মিরাজ না থাকলে বাংলাদেশের জন্য বড় এক দুর্বলতা হয়ে দাঁড়াবে বিষয়টি।