শিবপুরে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের কলেজ ছাত্রীসহ গুরুত্বর আহত ৩

../news_img/54804 mrin k.jpg

নরসিংদী প্রতিনিধি :: জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরধরে প্রতিপক্ষদের হামলায় পলাশ শিল্পাঞ্চল বিশ^বিদ্যালয়ের ২য় বর্ষের কলেজ ছাত্রীসহ তিনজন গুরুত্বর আহতের ঘটনা ঘটেছে। আহতদের পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার দক্ষিণ সাধারচর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। জানা যায়, শিবপুর উপজেলার দক্ষিণ সাধারচর গ্রামের আবুল হোসেনের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত একই এলাকার মৃত মিয়া হোসেনের ছেলে শফিকুল ইসলাম ও রতন মিয়ার সাথে জমিসংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এরই জেরধরে শনিবার সন্ধ্যায় শফিকুল ইসলাম ও তার ভাই রতন মিয়া দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে আবুলের বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় তার স্ত্রী সুরাইয়া বেগম বাধা দিতে গেলে তার মাথায় রড দিয়ে আঘাত করে গুরুত্বর জখম করে। পরে আবুল হোসেন ও তার মেয়ে কলেজ ছাত্রী আখি আক্তার বাধা দিতে গেলে শফিকুল ও রতন তাদেরকেও রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে।

আহত আবুল হেসেন জানান, আমার নিজের জমি ছেড়ে দেওয়ার জন্য শফিকুল ও রতন বিভিন্ন সময় প্রাণ-নাশের হুমকি দিয়ে আসছিল। এনিয়ে এলাকায় অনেকবার গ্রাম্য সালিশও হয়েছে।  ঘটনার সময় আমি কাজ শেষে বাড়ি এসে দেখি শফিকুল ও তার ছোট ভাই রতন আমার স্ত্রী ও মেয়েকে রড দিয়ে পেটাচ্ছে। তাদের এলোপাথাড়ি মারপিটে আমার স্ত্রীর মাথা ফেটে রক্ত বের হয় ও আমার মেয়ে অচেতন হয়ে মাটিতে লুটে পড়েছে। আমি বাধা দিতে গেলে তারা রড ও দা দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। পরে আমাদের আত্ম-চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

এব্যাপারে শিবপুর উপজেলার দক্ষিণ সাধারচর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড মেম্বার আলহাজ¦ বাবুল সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এটি অতি দুঃখজনক ঘটনা। খবর পেয়ে আমি হাসপাতালে তাদের দেখতে যাই।