বিয়ে বাড়ি হয়ে গেল মরা বাড়ি

../news_img/55839mri nu.jpg

মানিকগঞ্জ: রাত পোহালেই বড় বোনের বিয়ে। এজন্য বৈদ্যুতিক লাইটিংয়ের কাজ করছিলেন মাদরাসা ছাত্র আব্দুল্লাহ-আল মামুন (১৯)। কিন্তু হঠাৎ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মুত্যু হলো তার। মুহূর্তের মধ্যে বিয়ে বাড়ি পরিণত হলো মরা বাড়িতে। নেমে এলো শোকের ছায়া।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার কাংশা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুল্লাহ-আল মামুন কাংশা গ্রামের মুন্নু মিয়ার ছেলে এবং ঢাকার মিরপুরের দারুস সালাম দাখিল কওমি মাদরাসার মিসকাতের (মাস্টার্স) ছাত্র। বড় বোনের বিয়ে উপলক্ষে বুধবার তিনি মাদরাসা থেকে বাড়িতে এসেছিলেন।

নিহতের চাচাতো ভাই জহিরুল ইসলাম জানান, আজ শুক্রবার আব্দুল্লাহর বড় বোনের বিয়ে দিন ছিল। এ উপলক্ষে তিনি বাড়িতে বৈদ্যুতিক লাইটিংয়ের কাজ করছিলেন। এক পর্যায়ে বিদ্যুৎ চলে গেলে দাঁত দিয়ে একটি তার ছেড়ার সময় হঠাৎ আবার বিদ্যুত চলে আসে। এতে বিদ্যুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই এ মুত্যুর ঘটনায় বিয়ে বাড়িতে নেমে আসে শোকের ছায়া। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে আব্দুল্লাহ পরিবারের বড় ছেলে।

জহিরুল ইসলাম আরে জানান, শুক্রবার সকাল ৮টায় নামাজের জানাজা শেষে তাকে তালেবপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। দুপুর ১২ টার দিকে বিয়ে বাড়িতে বরযাত্রী আসার কথা রয়েছে। বড় বোনের বিয়ে হচ্ছে ধামরাই উপজেলার খড়ার চর এলাকায়।-জাগো নিউজ