'সিন্ডিকেটের গোপন তথ্য জেনে যাওয়ায় সালমান শাহকে হত্যা করা হয়'

../news_img/56082mrmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক : প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান শাহর মা নীলা চৌধুরী দাবি করেছেন, ফিল্মি সিন্ডিকেটের গোপন খবর জেনে যাওয়ায় সালমান শাহকে হত্যা করা হয়। ওই সিন্ডিকেটের সঙ্গে সালমানের স্ত্রী সামিরাও জড়িত ছিল।
 
চট্টগ্রামে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন সালমান শাহ ঐক্য জোট সভাপতি তানভীর সায়েম, সেক্রেটারি সালমান হায়দার, মাশরুর চৌধুরী ও আরিফ জয়।

নীলা চৌধুরী বলেন, ঘটনার তিন দিন আগে কলকাতার নায়িকা মুনমুন সেনকে নিয়ে চট্টগ্রামে এসেছিল আজিজ মোহাম্মদ ভাই। তাদেরকে চট্টগ্রামে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছিল সামিরার মা লুসি। সালমান তাদের অনেক পরিকল্পনার খবর জেনে গিয়েছিল। আমাকে সালমান বলেছিল, মা আমার বউটা বোধ হয় আমাকে মেরে ফেলবে। এর তিন দিন পরই সালমানকে হত্যা করা হয়। 

তিনি আরো বলেন, ওই ঘটনার আগেও কয়েকবার সালমানকে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন সালমান শাহ ঐক্য জোট সভাপতি তানভীর সায়েম, সেক্রেটারি সালমান হায়দার, মাশরুর চৌধুরী ও আরিফ জয়।

নীলা চৌধুরী বলেন, সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে বলে সামিরার মামী রুবী সুলতানা বারবার বলে যাচ্ছে। তার স্বামী, ভাই, পুত্রসহ সবাই এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিল। এ কারণে রুবির ভাই রুমীকে গুম করে হত্যা করা হয় এবং রুবির সন্তান ভিকিকে দিয়ে হত্যার আলামতগুলো নষ্ট করে ফেলেছে সামিরা। খুনের সাথে জড়িত রিজভী ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে বলেছে, রুবির মত সেও খুনের সঙ্গে জড়িত ছিল। কিভাবে সালমান শাহকে খুন করা হয়েছে তার সম্পূর্ণ বিবরণ সে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দিয়েছে। দু’জন আসামির জবানবন্দিতে সালমান শাহকে হত্যার বিষয়টি উঠে এলেও এখনও কেন মামলাটিকে হত্যা মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হচ্ছে না এবং আসামিদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না।
 
সালমান শাহ’র মা বলেন, ডিবি, সিআইডি আত্মহত্যার প্রতিবেদন দিয়ে মামলাটিকে প্রহসনের পর্যায়ে নিয়ে গেছে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত মামলার তদন্তভার র‌্যাবকে দেয়। মামলা দীর্ঘায়িত করার অভিযোগে পিপি আবু আবদুল্লাহকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি। বর্তমানে পিবিআইকে মামলাটি তদন্তের জন্য দেয়া হয়েছে। আমি দ্রুত এই হত্যার বিচার চাই।
 
এদিকে সালমান শাহ হত্যার বিচার দাবিতে আজ শনিবার দুপুরে নগরীর মুসলিম হলে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি আয়োজন করেছে সালমান শাহ ঐক্য জোট।