শ্রীপুরে ৩ লাশ উদ্ধার

../news_img/54995 mrin k.jpg

মৃদুভাষন ডেস্ক ::  গাজীপুরের শ্রীপুরে শুক্রবার ও শনিবার ভোরে পৃথক ঘটনায় তিন লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

এদের মধ্যে দুজন বিদ্যুৎপৃষ্টে ও একজন পারিবারিক কলহে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

এরা হলেন- ব্যবসায়ী আব্দুস ছালাম (৫০), কৃষক কাওসার (৩৫) ও গৃহবধূ রমিজা খাতুন (৪৫)। 

এই তিন লাশ উদ্ধারের ঘটনায় শ্রীপুর থানায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নাজমুল আলম জানান, উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের বাউনী গ্রামে শিয়াল মারার ফাঁদে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে ব্যবসায়ী আব্দুস ছালাম নিহত হন। তিনি স্থানীয় লেহাজ উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে এসআই জানান, গত কয়েক দিন ধরে শিয়ালের উৎপাত বেড়ে যাওয়ায় ছালাম তার পোল্টি ফার্মের চারদিকে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে শেয়াল মারার ফাঁদ পেতে ছিলেন। শনিবার ভোরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হওয়ায় ফার্মের পর্দা নামাতে গেলে তিনি বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এদিকে গাজীপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য জাকির হোসেন জানান, শুক্রবার রাতে হঠাৎ বজ্রপাত শুরু হলে টেলিভিশনের লাইন বিদ্যুতায়িত হয়। পরে কৃষক কাওসার টেলিভিশনের জ্যাক খুলতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

কাওসার উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নিজ মাওনা গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে।

অপরদিকে, পারিবারিক কলহের জেরে সিংগারদিঘী গ্রামের গৃহবধূ রমিজা খাতুন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আতœহত্যা করেন। নিহত রমিজা উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের সিংগারদিঘী গ্রামের আবদুল মালেকের স্ত্রী।

পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। 

শ্রীপুর থানার ওসি আসাদুজ্জামান জানান, ব্যবসায়ী আব্দুস ছালাম ও কৃষক কাওসারের লাশ আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।