রাম রহিম : দাঙ্গা বাঁধাতে সোয়া কোটি রুপি দেন হানিপ্রিৎ

../news_img/54996 mrin k.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক ::  ভারতের বিতর্কিত ধর্ষক ধর্মগুরু গুরমিত সিং রাম রহিমের তথাকথিত পালিত কন্যা হানিপ্রিৎ ইনসান দাঙ্গা বাঁধানোর জন্য সমর্থকদের সোয়া কোটি রুপি দিয়েছিলেন।

২৫ আগস্ট রাম রহিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় রায় হওয়ার কয়েক দিন আগে দেরা সাচা সওদার পাঁচকুলা শাখার প্রধান চামকাউর সিংকে ওই অর্থ দেন তিনি।

রাম রহিমের ব্যক্তিগত সহকারী ও গাড়িচালক রাকেশ কুমার জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশের কাছে এ কথা স্বীকার করেছেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সিবিআই আদালতে রাম রহিম দোষী সাব্যস্ত হলে সমর্থকদের দিয়ে দাঙ্গা সৃষ্টি করতে ১ কোটি ২৫ লাখ রুপি বিলানো হয়েছিল।

এসিপি মুকেশ মালহোত্রার নেতৃত্বে বিশেষ তদন্ত দলের (এসআইটি) হেফাজতে রয়েছেন রাকেশ কুমার। ওই দাঙ্গা প্রতিহত করতে রাম রহিমের ভক্তদের ওপর গুলি চালায় পুলিশ এবং এতে ৩৬ ভক্ত নিহত হন।

২৭ সেপ্টেম্বর রাকেশ কুমারকে গ্রেপ্তার করা হয়। রায়ের দিন রাম রহিম ও হানিপ্রিতের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল তাকে। ২৬ আগস্ট হানিপ্রিৎকে রোতাক থেকে সিরসায় নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি।

পাঁচকুলার পুলিশ কমিশনার এএস চাওলা সোয়া কোটি রুপি দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে তদন্ত প্রক্রিয়াধীন থাকায় এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলেননি তিনি।

৩ অক্টোবর হানিপ্রিৎ ও রাম রহিমের কয়েকজন সহচরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

দুই নারী ভক্তকে আশ্রমে ধর্ষণের দায়ে রাম রহিমের ১০ বছর করে ২০ বছর জেল হয়েছে। আল্ট্রা রকস্টার এই ধর্মগুরু হরিয়ানা রাজ্যের সিরসায় বিশাল আশ্রম গড়ে তুলেছেন। আশ্রমের ভেতরে প্রচলিত আইন-কানুনের পরিপন্থি কাজকর্ম করা হতো বলে অনেক তথ্য বেরিয়ে আসছে।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন