নাফ নদীতে নৌকাডুবি, শিশুসহ ১১ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার

../news_img/55010 mrin k.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক ::  কক্সবাজারে টেকনাফের নাফ নদীতে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার সময় রোহিঙ্গা বোঝাই আরও একটি নৌকা ডুবে গেছে। এ ঘটনায় শিশুসহ ১১ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করা হলেও এখনও নিখোঁজ রয়েছেন ২০-২৫ জন।

রোববার রাতে শাহপরীর দ্বীপ চ্যানেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জীবিত উদ্ধার হওয়া এক রোহিঙ্গা বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের নাইক্ষ্যংদিয়া থেকে প্রায় ৪০ জন নৌকায় করে টেকনাফে আসছিলেন। নাফ নদীর ঘোটার চলে তাদের নৌকাটি হঠাৎ ডুবে যায়। তাদের চিৎকারে বিজিবির টহল দল বিষয়টি জানতে পেরে উদ্ধার অভিযানে নামে।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম আরিফুল ইসলাম জানান, শাহপরীর দ্বীপে নাফ নদীর ঘোলার চর পয়েন্টে একটি রোহিঙ্গাবাহী নৌকা ডুবে গেছে। এ ঘটনায় ৮ রোহিঙ্গাকে বিজিবির টহল দল জীবিত উদ্ধার করেছে।

টেকনাফ থানার ওসি মো. মাইন উদ্দিন খান জানান, নৌকাডুবির ঘটনায় শিশুসহ ১১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনও অনেক নিখোঁজ রয়েছে। তাদের উদ্ধার অভিযান চলছে।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর টেকনাফের পাশের উপজেলা উখিয়ার ইনানী সৈকতের কাছে সাগরে রোহিঙ্গাবাহী নৌকাডুবির ঘটনায় ২০ জন মারা যান।