দেশজুড়ে হার্ডলাইনে সরকার

../news_img/56189mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, কেন্দ্রীয় নেতা নাজিমউদ্দিন আলম ও ছাত্রদল সভাপতি রাজিব আহসানের নেতৃত্বে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে ছাত্রদল বিক্ষোভ শুরু করলে লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এ সময় সেখান থেকে ছাত্রদলের ৮ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে মতিঝিল ও পল্টন থানা পুলিশ।

রাজধানীতে গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান আশিক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ ফারুকী হিরা, স্কুল বিষয়ক সম্পাদক আরাফাত বিল্লাহ খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি সাজিদ হাসান বাবু, এফএইচ হল শাখার আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম, তিতুমীর কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক কাজী শহিদুল, ঢাকা কলেজ ছাত্রদলের সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ইমরান, পল্টন থানা ছাত্রদল নেতা ইয়াসিন ভুঁইয়া, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তর নেতা শোয়েব খান, রানা, মনির, ওমর ফারুক, বাবু, আবু সাঈদ, শাকিল আহমেদ ও সাজ্জাদ মিয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ৫৭নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি জুয়েল, লালবাগ থানার সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন, শাহজাহানপুর থানার সদস্য সচিব মোস্তাক, সাইদুল, সুমন, দুলাল ও উজ্জ্বল।

এ সময় বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মোল্লা মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন, শাহজাহান, পঞ্চগড় জেলা ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মানিকসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এছাড়া রাজধানীর দৈনিক বাংলা থেকে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শরিক এনডিপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে লেবার পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ইরানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরে মোস্তাফিজুর রহমান ইরানকে ছেড়ে দেয়া হয়।

এ ছাড়া সোমবার রাতেই বাগেরহাট জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মোজাফফর রহমান আলম এবং সদর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ ইদ্রিস আলী নিকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদিকে পুলিশের বেধড়ক লাঠিচার্জে রাজধানীর শাহজাহানপুর থানা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা বাদল ও নিউ মার্কেট থানা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রিংকু, বরিশাল দক্ষিণ জেলা যুবদল সভাপতি পারভেজ আকন্দ বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক এইচএম তসলিমউদ্দিনসহ ৩০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

বাগেরহাটে আটক ৪৯ : বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, বাগেরহাটে পুলিশের বিশেষ অভিযানে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাফ্‌ফর রহমান আলম ও সদর থানা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইদ্রিস আলী এবং বিএনপি ও জামায়াত কর্মীসহ ৪৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত জেলার ৯টি উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে এদের আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে মাহমুদ হাসান নামের এক জামায়াত কর্মী ও সেকেন্দার আলী শেখ, দেলোয়ার হোসেন শেখ নামের দুই বিএনপি কর্মী রয়েছেন। এদের বাড়ি বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার বগা গ্রামে।

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাতাব উদ্দিন বলেন, পুলিশের বিশেষ অভিযানে নাশকতা মামলার আসামি জেলা বিএনপি নেতা মোজাফ্‌ফর রহমান আলম ও সদর থানা বিএনপির নেতা ইদ্রিস আলীসহ মোট ৮ জনকে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী রেজা বাবু বলেন, বিএনপির বিভিন্ন কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্ত করতে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলায় পুলিশ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাফ্‌ফর রহমান আলম ও সদর থানা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইদ্রিস আলীসহ বিএনপি নেতাকর্মীদের আটক করেছে। -মানবজমিন