আফগানিস্তানে তালেবানদের হামলায় নিহত ৭১

../news_img/55068 mrin k.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: আফগানিস্তানে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলা ও বন্দুকধারীদের গুলিবর্ষণে অন্তত ৭১ জন নিহত হয়েছেন। এ হামলায় আরো দেড় শতাধিক আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার প্রথম হামলাটি চালানো হয় পাকতিয়া প্রদেশের রাজধানী গারদেজের পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে। এ হামলায় নিহত হয়েছে ৪১জন । আহত হয়েছে ১১০ জন বেসামরিক নাগরিক ও ৪৮ জন পুলিশ সদস্য। নিহতদের মধ্যে আঞ্চলিক পুলিশ প্রধানও রয়েছে। তালেবান এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।

এক বিবৃতিতে আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, প্রথমে প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এরপরই বিপুল সংখ্যক হামলাকারী গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। পাল্টা হামলায় পাঁচ জঙ্গি নিহত হয়েছে।

স্থানীয় এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আঙ্গিনায় দুটি গাড়িবোমার বিস্ফোরণ করা হয়েছে। ওই এলাকাতে পুলিশ বিভাগের প্রাদেশিক সদর দপ্তর, সীমান্ত পুলিশ ও আফগান সেনাবাহিনীর দপ্তর ছিল।

গারদেজের স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক হেদায়েতুল্লাহ হামিদি বলেছেন, ‘হতাহতদের মধ্যে নারী, শিক্ষার্থী ও পুলিশ সদস্য রয়েছে। অনেকে সেখানে এসেছিলেন পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন-সংশোধনের জন্য।’

দ্বিতীয় হামলাটি চালানো হয়েছে প্রতিবেশী গজনী প্রদেশে। একটি বিস্ফোরকভর্তি গাড়ি প্রাদেশিক গভর্নরের কার্যালয়ের বাইরে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এরপরই বন্দুকধারীরা কার্যালয়ের ভেতরে হামলা চালায়। হামলায় কমপক্ষে ৩০ জন নিহত হয়েছে। এদের অধিকাংশই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য।  এছাড়া আহত হয়েছে আরো ১০ জন।

গজনীর পুলিশ প্রধান মোহাম্মদ জামান জানিয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ১২জনের বেশি তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। তবে তার এ দাবির ব্যাপারে সত্যতা নিশ্চিত করা যায়নি।