ব্যারিস্টার পরিচয়ে টকশো পারভেজকে আইন পেশা থেকে স্থায়ীভাবে অপসারণ

../news_img/56493 mri ni.jpg

মৃদুভাষন ডেস্ক ::  পেশাগত অসদাচরণের দায়ে ঢাকা বারের সদস্য অ্যাডভোকেট পারভেজ আহমেদকে আইন পেশা থেকে স্থায়ীভাবে অপসারণ করেছে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।

পারভেজের বিরুদ্ধে ব্যারিস্টার ও সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী না হয়েও এসব পরিচয় দেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ অফিসার কামনাশীষ রায় পারভেজকে অপসারণের তথ্য জানান।

বার কাউন্সিল জানায়, পারভেজ আহমেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার এম সারোয়ার হোসেন।

তার অভিযোগ ছিল, পারভেজ আহমেদ নিজেকে ব্যারিস্টার ও সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবীর মিথ্যা পরিচয় দিয়ে দেশের বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে টকশো’তে অংশ নিয়ে জনসাধরণকে প্রতারিত করছেন। ৭১ টিভি, ইটিভি, জিটিভি, আরটিভি এবং দীপ্ত টিভিতে টকশো’তে অংশ নিচ্ছেন তিনি।
 
পারভেজ ভুয়া পরিচয়ে টকশোতে অংশ নিয়ে পেশাগত অসদাচরণ করেছেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এসব অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় অসদাচরণের দায়ে বার কাউন্সিলের এক নম্বর ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান মো. ইয়াহিয়া, সদস্য মো. পারভেজ আলম খান ও শেখ আখতারুল ইসলাম ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য পারভেজ আহমেদকে গত শনিবার আইন পেশা থেকে স্থায়ীভাবে অপসারণের আদেশ দেন। 
 
বার কাউন্সিল থেকে আরও জানানো হয়, এর আগেও অন্য এক মামলায় গত ৭ অক্টোবর পারভেজ আহমেদকে ১০ বছরের জন্য আইন পেশা থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।