বড়লেখায় বিষপানে গৃহবধূর মৃত্যু

../news_img/map boroleaka.jpg

লিটন শরীফ, বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ::  মৌলভীবাজারের বড়লেখায় বিষপানে রুজি বেগম (৩৫) নামে এক গৃহবধূ মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গত সোমবার (২৩ অক্টোবর) দিবাগত রাত ৮টার দিকে পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুত করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

তবে ওই গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে ধু¤্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন নির্যাতন করে মুখে বিষ ঢেলে হত্যার পর লাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেখে পালিয়ে যান বলে অভিযোগ করেছে গৃহবধূর বাবার বাড়ির লোকজন। ঘটনার পর থেকে রুজির প্রবাসী স্বামী সমছ উদ্দিন পলাতক রয়েছেন।

পুলিশ, হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উত্তর সুড়িকান্দি গ্রামের কাতার প্রবাসী সমছ উদ্দিনের সাথে স্ত্রী রুজিনা বেগমের পারিবারিক কলহ চলছিল। সমছ উদ্দিন গত (২২ অক্টোবর) রবিবার কাতার থেকে দেশে আসেন। গৃহবধু রুজি বেগমের বাবার বাড়ি উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের মোহাম্মদনগর গ্রামে। সোমবার বিকেল চারটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার মধ্যে বিষ পানের এ ঘটনাটি ঘটে। এর আগে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। সন্ধ্যা সাতটায় সমছ উদ্দিনের পাশের বাড়ির একজন পুরুষ ও নারী রুজিকে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। পরে তাঁরা ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে জানতে পেরে হাসপাতালে লাশ রেখে লাপাত্তা হয়ে যান। খবর পেয়ে রাত ৮টার দিকে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইয়াকুব হোসেন হাসপাতালে গিয়ে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুত করেন।

নিহত গৃহবধুর ভাই কালাম উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, ‘বোন জামাই (রুজির স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন আমার বোনকে নির্যাতন করে মুর্মূষু অবস্থায় মুখে বিষ ঢেলে হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে বোন মারা যাওয়ার পর তারা সেখান (হাসপাতাল) থেকে পালিয়ে যায়।’  

বড়লেখা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) দেবদুলাল ধর গৃহবধূর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে গতকাল মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) বিকেলে বলেন, ‘পারিবারিক কলহের জেরে রুজি বেগম বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। সুরতহালে লাশের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে হত্যার পিছনে কোনো কারণ কিংবা কারো প্ররোচনা রয়েছে কি না তা তদন্তাধীন। স্বামী পলাতক রয়েছেন। লাশ দাফনের পরে গৃহবধূর বাবার বাড়ি থেকে অভিযোগ দেওয়া হতে পারে।’