৪৫০ টাকায় এক কেজি ওজনের ইলিশ

../news_img/56568mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::ইলিশ সংরক্ষণে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় জেলেরা মাছ শিকার শুরু করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা সদর এবং চর হাজীগঞ্জ বাজারে সুস্বাদু এই ইলিশ মাছ ক্রয়-বিক্রয় খুবই কম দামে। অনেকের কাছে অবিশ্বাস্য মনে মনে হলেও এক কেজি ওজনের ইলিশ মাত্র ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকায় পাওয়া যাছে।

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) মাছের বাজার ঘুরে দেখা গিয়েছে, মাছ বিক্রেতাদের ডালায় শোভা পাচ্ছে নানা আকৃতির রুপালি ইলিশ। শুধু বাজারেই নয়, ইলিশ বিক্রি হচ্ছে নদীতীরের বিভিন্ন খেয়াঘাট এলাকায়ও। মাছ কিনতে তেমনি ভিড় করছেন ক্রেতারাও। চরভদ্রাসন সদর ও হাজীগঞ্জ মাছের বাজারে এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকায় এবং ১ কেজির নিচে নানা আকৃতির ইলিশ বিক্রি হয়েছে ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকায়।

জেলের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পদ্মা নদীতে এখন প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে তাদের জালে। এজন্য অনেক কম দামে বিক্রি করছি। বাজারে তাই ক্রেতাদের ভিড় সামলাতে তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

উপজেলার গোপালপুর ঘাট ও হাজীগঞ্জ বাজার ঘাট এলাকায় দেখা যায়, নদীতে শত শত জেলে ইলিশ শিকারে ব্যস্ত রয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকেই কারেন্ট জাল দিয়ে ছোট-বড় সব ধরনের ইলিশ মাছ ধরছেন।

চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. সগীর হোসেন বলেন, ‘এ বছর মা-ইলিশ রক্ষায় নদীতে অব্যাহতভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। একই সঙ্গে অনেক জেলেকে জেল-জরিমানা করার পাশাপাশি কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়। গত দুদিন ধরে নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে। তবে কারেন্ট জাল দিয়ে জাটকা ধরা বন্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।’