বন্ধ হচ্ছে বাংলাদেশী অধ্যুষিত লাইমহাউজ ও ব্রিকলেইন পুলিশ স্টেশন

../news_img/56787 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: সরকারের বাজেট কাটের কারনে ডিসেম্বর মাসেই বন্ধ হচ্ছে বাংলাদেশী অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলের দুইটি গুরুত্বপূর্ণ পুলিশ স্টেশন। সেগুলি হচ্ছে লাইমহাউজ ও ব্রিকলেইন পুলিশ স্টেশন। কাউন্সিল থেকে তা নিশ্চিত করা হয়েছে।

আর্থিক সংকটে অর্থ সাশ্রয়ের জন্য লন্ডনের প্রতিটি কাউন্সিলে একটি মাত্র ফ্রন্ট লাইন কাউন্টার সার্ভিস থাকবে বলে জানিয়েছে মেয়র অফিস ফর পুলিসিং এন্ড ক্রাইম। আগামী ৪ বছরে পুলিশ স্টেশনের সংখ্যা কমিয়ে প্রায় ৪০০ মিলিয়ন পাউন্ড সেইভ করার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

টাওয়ার হ্যামলেটস বারার বেথনাল গ্রীন পুলিশ স্টেশনে হবে একমাত্র ফ্রন্ট লাইন কাউন্টার সার্ভিস। আগামী ১৪ ডিসেম্বর থেকে লাইম হাউজ ও ব্রিকলেইন পুলিশ স্টেশন বন্ধ হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে বন্ধ হতে যাওয়া ব্রিকলেইন পুলিশ স্টেশনে মাত্র ০.৩ অপরাধ ও লাইম হাউজে ১.৯ অপরাধ রেকর্ড করা হত। তবে বেথনালগ্রীন স্টেশনে প্রতিদিন গড়ে ৫.১ ক্রাইম রেকর্ড করা হচ্ছে।
পুলিশ স্টেশন বন্ধ হলেও অপরাধ নিয়ন্ত্রনে জরুরী নাম্বার ১০১ এবং অনলাইনে সুবিদা বাড়ানোর উপর জোর দেওয়া হচ্ছে। লাইমহাউজ পুলিশ স্টেশন বন্ধ করা হলেও অপরারেশনাল পুলিশ বিল্ডিং হিসেবে রাখা হবে। অপরদিকে ব্রিকলেইন পুলিশ স্টেশন বিক্রি করে ৫০হাজার পাউন্ড প্রতি বছর সেইভ করা হবে বলে জানানো হয়।