স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ায় জরুরি বিমান অবতরণ!

../news_img/56882mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::সবকিছুই ঠিকঠাক মতনই চলছিল৷কিন্তু আচমকাই ছন্দপতন ঘটল ইরানি মহিলার স্বামী ঘুমিয়ে পড়তেই৷স্বামীর ঘুমিয়ে পড়ার সুযোগ নিয়ে গোপনে তার মোবাইল ফোনটি নিয়ে নেয় স্ত্রী৷ এরপর সেই ফোন অন করতেই সে স্বামীর বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্ক জানতে পারে৷ শুরু হয় তুমুল অশান্তি৷

স্বামী স্ত্রীর চূড়ান্ত ঝামেলা! যার মাসুল গুনল কাতার বিমান৷ ৩৭হাজার ফুট উচ্চতা থেকে আচমকাই করতে হল জরুরি অবতরণ৷

(৬ নভেম্বর সোমবার) সকালে ঘটনাটি ঘটে৷ বালি থেকে অন্যান্য যাত্রীদের মতন স্বামী সন্তান নিয়ে বোয়িং ৭৭৭ বিমানে উঠেছিলেন এক ইরানি পরিবার৷  বিমানসেবিকা এবং অন্যান্য বিমানযাত্রীরা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে চাইলেও তাদেরকেও চূড়ান্ত অপমান করেন ওই মহিলা৷ এরপর বিমান অবতরণের নির্দেশ দিলে বিমানসেবিকারা সেই আবেদন খারিজ করে দেয়৷ যার জেরে ঝামেলার তীব্রতা আরও বাড়তে থাকে৷

অবশেষ, এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সহায়তায় চেন্নাইয়ের বিমানবন্দরে করা হয় জরুরি অবতরণ৷ বালি থেকে দোহা যেতে সময় লাগে প্রায় ১০ঘন্টা৷ এই সময়ের মাঝপথে জরুরি অবতরণ করানোর ফলে বেশ কিছুটা বিরক্ত হন বিমানের অন্যান্য যাত্রীরা৷ কিন্তু তাতে কোনও ফারাকই পরেনি ওই মহিলার৷তিনি তার সিদ্ধান্তে একেবারে অটল৷ অবশেষ, তাদেরকে চেন্নাই বিমানবন্দরে নামিয়ে দোহার উদ্দেশে রওনা দেয় ওই বিমানটি৷

অপরদিকে, চেন্নাইয়ে বিমানবন্দরে নেমেও ওই মহিলা স্বামীর উপর চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকেন৷ সূত্রের খবর, তাদেরকে একটি ঘরের মধ্যে পাশাপাশি বসিয়ে সমস্যার সমাধান করতে এগিয়ে আসেন বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা৷ বেশ কিছুক্ষণ বোঝানোর পর অবশেষে শান্ত হন ওই মহিলা৷ তাদেরকে অন্য একটি বিমানে করে দোহার উদ্দেশে রওনা করে দেওয়া হয়৷

কাতার এয়ারওয়েজের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এটি ওই দম্পতির একান্ত ব্যক্তিগত বিষয়৷ তাই এই বিষয়টি নিয়ে একেবারেই মুখ খুলতে নারাজ তারা৷