যে রেস্তোরাঁয় পোশাক পরিধান নিষিদ্ধ!

../news_img/56899mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::সভ্য সমাজে পোশাক মানুষের সৌন্দর্য্য ও আবরণের বাহন। তাই প্রাচীনকাল থেকে ধীরে ধীরে সভ্যতার উৎকর্ষতার সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের বৈচিত্র্য এসেছে এই পোশাকে।

অনেক আগেই মানুষ নিজেকে প্রাচীন যুগের বন্য দশা থেকে নিয়ে গেছে সভ্যতা শীর্ষ চূড়ায়। আদিকালের মানুষের পোশাক-আশাকহীন সংস্কৃতি থেকে অনেক আগেই বেরিয়ে এসেছে। পৃথিবীর সর্বাপেক্ষা বুদ্ধিমান জীবটি সভ্যতার ছোঁয়ায় পশুর চামড়া দিয়ে নিজেদের আবৃত করেছিল সেই আদি যুগে। আর সেই পথ ধরেই ধীরে ধীরে নিয়ে এসেছে পোশাকের আশাকের এই ধারণা।

বর্তমান সভ্য সমাজে এখন আর কেউ নগ্ন দেহে ঘুরে না। কিন্তু, সম্প্রতি প্যারিসে এমন একটি রেস্তোরাঁর কথা জানা গেছে, যেখানে ঢুকতে গেলে আপনাকে আবার সেই আদিম যুগের মতো পোশাকহীন হতে হবে। অন্যথায় প্রবেশের অনুমতিই মিলবে না সেখানে! যা কিনা বর্তমান সমাজে অনুপস্থিত।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম ইনডিপেন্ডেন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্যারিসের ওই রেস্তোরাঁর নাম ‘ও নেচার’। একসঙ্গে ৪০ জনের খাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে এই রেস্তোরাঁয়। বাংলাদেশি টাকায় ওই রেস্তোরাঁয় খাবারের দাম শুরু জনপ্রতি ২৫০০ টাকা থেকে।

আর যখনই কেউ রেস্তোরাঁয় ঢুকবেন, তাকে নির্দিষ্ট জায়গায় জামা কাপড় খুলে ভিতরে আসতে হবে।

তবে রেস্তোরাঁর ভিতরের কীর্তিকলাপ বাইরের লোকের কাছে গোপনই থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, প্যারিস পৃথিবীর অন্যতম সুন্দর শহর, যেখানে নগ্নতা মুক্তির প্রতীক। সে দেশের অনেকে জায়গাতেই নগ্নতাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়। ন্যুড সি বিচ, ন্যুড পার্ক, ন্যুড পুল আগে থেকেই ছিল।

এবার নতুন সংযোজন হল ন্যুড রেস্টুরেন্ট। সূত্র: এবেলা