দিদি, আসেন ইলিশ খাওয়াব, ‘বন্ধন’ উদ্বোধন শেষে মমতাকে হাসিনা

../news_img/46930mri nui.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে খুলনা-কলকাতা রেলপথে ‌‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ ট্রেনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও উপস্থিত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) সকাল পৌন ১২টায় ঢাকায় শেখ হাসিনা ও দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদি নিজ নিজ কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ট্রেনের উদ্বোধন করেন।

‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন শেষে শেখ হাসিনা বলেন, ‘বন্ধন শুধু দুই দেশের রেলের নয়, দুই দেশের জনগণের মধ্যে বন্ধন সৃষ্টি করে সার্বিক উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাওয়াই আমাদের লক্ষ্য। এতে দুই দেশের জনগণই লাভবান হবে।’

এ সময় তিনি নরেন্দ্র মোদি ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলাদেশে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানান। ভিডিও কনফারেন্সে থাকা মমতার উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘দিদি, ইলিশ মাছ আছে। আসেন খাওয়াব।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুই দেশের মানুষকে অভিনন্দন জানান। এ সময় তিনি বাংলায় বলেন, আমাদের মৈত্রী ও বন্ধন আরও সুদৃঢ় হলো।

মোদি বলেন, ‘প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে প্রতিবেশীর মতোই সম্পর্ক থাকা দরকার। দেখা-সাক্ষাৎ হওয়া দরকার। বন্ধন এক্সপ্রেস ও ননস্টপ মৈত্রী এক্সপ্রেস চালুর মাধ্যমে যাত্রীদের সুবিধা হবে বলে জানান মোদি। তিনি বলেন, এতে যাত্রার সময় প্রায় তিন ঘণ্টা বাঁচবে।’

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে খুলনা-কলকাতা রেলপথে ‌‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ ট্রেনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও উপস্থিত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) সকাল পৌন ১২টায় ঢাকায় শেখ হাসিনা ও দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদি নিজ নিজ কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ট্রেনের উদ্বোধন করেন।
‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন শেষে শেখ হাসিনা বলেন, ‘বন্ধন শুধু দুই দেশের রেলের নয়, দুই দেশের জনগণের মধ্যে বন্ধন সৃষ্টি করে সার্বিক উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাওয়াই আমাদের লক্ষ্য। এতে দুই দেশের জনগণই লাভবান হবে।’

এ সময় তিনি নরেন্দ্র মোদি ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলাদেশে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানান। ভিডিও কনফারেন্সে থাকা মমতার উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘দিদি, ইলিশ মাছ আছে। আসেন খাওয়াব।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুই দেশের মানুষকে অভিনন্দন জানান। এ সময় তিনি বাংলায় বলেন, আমাদের মৈত্রী ও বন্ধন আরও সুদৃঢ় হলো।

মোদি বলেন, ‘প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে প্রতিবেশীর মতোই সম্পর্ক থাকা দরকার। দেখা-সাক্ষাৎ হওয়া দরকার। বন্ধন এক্সপ্রেস ও ননস্টপ মৈত্রী এক্সপ্রেস চালুর মাধ্যমে যাত্রীদের সুবিধা হবে বলে জানান মোদি। তিনি বলেন, এতে যাত্রার সময় প্রায় তিন ঘণ্টা বাঁচবে।’