১০ হাজার নারীর শয্যাসঙ্গী ‍তিনি

../news_img/46945mri nui.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::২০ বছরে রিক ফ্লেয়ার কমপক্ষে ১০ হাজার নারীর শয্যা গ্রহণ করেছেন। এ সময়ে পান করেছেন দিনে কমপক্ষে ১০ ক্যান বিয়ার। সঙ্গে থাকতো ৫টি ককটেল। রিক ফ্লেয়ারের বয়স এখন ৬৮ বছর। রেসলিং দুনিয়ায় আমেরিকান কিংবদন্তি রিক ফ্লেয়ার। তবে রেসলিংয়ের রিংয়ে তিনি পরিচিত ‘দ্য ন্যাচার বয়’ নামে। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে একজন পেশাদার রেসলিং ম্যানেজার। জন্ম তার ১৯৪৯ সালের ২৫ শে ফেব্রুয়ারি। তবে এ সব বিষয়ে নয়, তিনি এবার সংবাদ শিরোনাম হয়েছেন অন্য কারণে। তাকে নিয়ে একটি ডকুমেন্টারি বানানো হয়েছে। আর তা বানিয়েছেন পরিচালক রোরি কার্পফ। আর সেই ডকুমেন্টারিতে প্রকাশ হলো এসব  ঘটনা।

পরিচালক রোরি কার্পফ তার ডকুমেন্টারিতে যুক্তরাষ্ট্রের রেসলিং ব্যবসায় সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের অন্যতম এই ফ্লেয়ারের জীবন তুলে ধরেছেন। এতে বলা হয়েছে, রিক ফ্লেয়ার চারবার বিয়ে করেছেন। তার ব্যক্তিজীবন আর বাইরের জীবন এক নয়। ইউএসএ টুডে রিপোর্ট করেছে, তিনি কমপক্ষে ১০ হাজার নারীকে শয্যাসঙ্গী করেছেন। আর তার ছিল অসীম মাদকের নেশা। ফ্লেয়ার নিজেই দাবি করেছেন, তিনি দিনে ১০ ক্যান বিয়ার ও ৫টি ককটেল ব্যবহার করতেন।

এ অবস্থা তার একটি শো থেকে আরেকটি শো-এর মধ্যে রাস্তায় থাকা অবস্থায় সেবন করতেন। একজন মনোবিজ্ঞানীর কাছে গিয়েছিলেন তিনি। তাকে তার মাদক গ্রহণের কথা জানিয়েছেন। জবাবে ওই মনোবিজ্ঞানী বলেছেন, এ ভাবে মাদক সেবন করা সম্ভব নয়। ১৯৮৯ সালে তিনি ওই মনোবিজ্ঞানীকে বলেছিলেন, প্রতিদিন আমি কাজে থাকি।

তাই গাড়িতে বসে বিয়ার পান করি। হোটেলে যাই। পান করি ভোদকা। তবে অতি মাত্রায় মাদক সেবনের ফল তিনি পেয়েছেনও। গত আগস্টে তিনি কোমায় চলে যান। তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। তারপর অপারেশন করা হয়। দেখা যায় অনেক আগেই তার কিডনি নষ্ট হয়ে গেছে। এ সময় চিকিৎসকরা তাকে বলে দেন, তার আর বেঁচে থাকার সুযোগ আছে শতকরা ২০ ভাগ।