হাথুরুসিংহে চলে গেলে বাংলাদেশের নতুন কোচ হবে কে?

../news_img/56954mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক: বৃহস্পতিবার দুপুর থেকেই মিডিয়ায় খবর চন্ডিকা হাথুরুসিংহে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। কিন্তু এ বিষয়ে বিসিবি’র কেউই নিশ্চিত কোনও তথ্য দিতে পারেননি। তবে, সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়ে কথা বলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সবার মনে প্রশ্ন-হাথুরুসিংহে চলে গেলে বাংলাদেশের নতুন কোচ হবে কে?

নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ‘কোচ আমার কাছে একটা চিঠি পাঠিয়েছিলেন। কতো তারিখে পাঠিয়েছিলেন সেটি আমার ঠিক মনে নেই। এটা হয়তো হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের পর। তবে, ১৫ অক্টোবরের আগে’।

তিনি আরও বলেন, ‘চিঠিতে সে নির্দিষ্ট কোনও কারণ উল্লেখ করেনি। শুধু লিখেছে, সে দায়িত্ব চালিয়ে যেতে আগ্রহী না। সুতরাং, তার সাথে কথা বলার আগ পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে কথা বলা কঠিন’।

বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘বারবার চেষ্টা করেও আমরা কোচের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারিনি। তার মোবাইল বন্ধ। আগামী ১৫ নভেম্বর কোচের বাংলাদেশে ফেরার কথা। তার সঙ্গে কথা না বলে আমরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না’।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বাংলাদেশ দল দুইটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুইটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে সব ম্যাচেই বাজেভাবে হেরেছে। এরপর কোচকে নিয়ে বেশ সমালোচনা হয়েছে। বিশেষ করে, দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে তার নাকি একচ্ছত্র আধিপত্য। এ বিষয়ে পত্রপত্রিকা সহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেক লেখালেখি হয়েছে।

অন্যদিকে, হাথুরুসিংহেকে প্রধান কোচ হিসাবে নিয়োগ দিতে চাচ্ছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট। এ বিষয়ে কথা নাকি প্রায় চূড়ান্ত। নিজের দেশের ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে মজবুত ইঙ্গিতই পেয়েছেন তিনি। যার ভিত্তিতেই হাথুরুসিংহে পদত্যাগের পথে হেঁটেছেন।

হাথুরুসিংহের সময়ে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল বেশ উন্নতি করেছে। কিন্তু হাথুরুসিংহে বর্তমানে বাংলাদেশ দলে তার ভূমিকা নিয়ে সন্তুষ্ট নন। গত অক্টোবরেও হাথুরুসিংহে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিন্তু বিসিবি তা গ্রহণ করেনি। এরপর হাথুরুসিংহে দলের সঙ্গে কাজ করতে রাজি হন।

গত জুনে শ্রীলঙ্কা দলের কোচের পদ থেকে গ্রাহাম ফোর্ড পদত্যাগ করার পর থেকে ক্রিকেট শ্রীলঙ্কা নতুন একজন প্রধান কোচ খুঁজছে। গত তিন মাস ধরে তারা এ বিষয়ে হাথুরুসিংহের সঙ্গে কথা চালিয়ে যাচ্ছেন। যদিও হাথুরুসিংহে প্রথমদিকে রাজি হননি। কিন্তু পরবর্তীতে নিজের দেশ থেকে এমন আকর্ষণীয় প্রস্তাব নিয়ে ভেবেছেন হাথুরুসিংহে।

ক্রিকেট শ্রীলঙ্কা ইতোমধ্যে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের দীর্ঘদিনের বন্ধু থিলান সামারাবিরাকে ব্যাটিং কোচ হিসাবে নিয়োগ দিয়েছে। তারপর বোর্ডের নির্বাচক কমিটিতে পরিবর্তন এসেছে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের চুক্তি ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত। সুতরাং, তিনি যদি এখনই পদত্যাগ করার চিন্তাভাবনা করেন তাহলে বিষয়টি জটিল হবে। এই প্রক্রিয়া শেষ হতে বেশ সময়ও লাগবে।