‘লেবাননের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা সৌদি আরবের’

../news_img/46963mri nui.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::লেবাননের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে সৌদি আরব। শুক্রবার এক ভিডিও বার্তায় এ অভিযোগ করেছেন লেবাননের সশস্ত্র রাজনৈতিক সংগঠন হিজবুল্লাহ’র প্রধান হাসান নাসরাল্লাহ। এসময় লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি’র সৌদি আরবে সফরে গিয়ে পদত্যাগের ঘোষণাকে অবৈধ ও অসাংবিধানিক আখ্যা দেন তিনি।

তিনি বলেন, চাপে ফেলে হারিরিকে পদত্যাগে বাধ্য করেছে সৌদি সরকার। বর্তমানে হারিরি রিয়াদে বন্দি বলেও দাবি করেন নাসরাল্লাহ। অভিযোগ করেন- মধ্যপ্রাচ্যে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টির লক্ষ্যেই এমন বৈরি আচরণ সৌদি প্রশাসনের।

এদিকে হেজবুল্লাহ প্রধান হাসান নাসরাল্লাহ অভিযোগ করেছেন, তার দেশ লেবাননে হামলা করতে ইসরায়েলকে উস্কানি দিচ্ছে সৌদি আরব। ‘আমি কোনো বিশ্লেষণের কথা বলছি না; তথ্য জানাচ্ছি, লেবাননে হামলার জন্য সৌদি আরব ইসরায়েলকে কয়েক বিলিয়ন ডলার দিতে রাজি আছে’, বলেন এই শিয়া নেতা।

২০০৬ সালের ইসরায়েল-হেজবুল্লাহ যুদ্ধের প্রসঙ্গ টেনে হেজবুল্লাহ প্রধান আরও বলেন, ওই সময় এক পর্যায়ে ইসরায়েল যুদ্ধ সমাপ্তি টানার চেষ্টা করলেও সৌদি আরবের চাপে সেটি দীর্ঘায়িত করেছিল।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির পদত্যাগ ও সৌদিতে অবস্থা সম্পর্কে বলেন, তার পদত্যাগ লেবাননের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে রিয়াদের নজিরবিহীন হস্তক্ষেপের উদাহরণ।

তিনি আরও বলেন, লেবাননে বিদেশি হস্তক্ষেপের ঘটনা নতুন নয়, আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগে বাধ্য করার পর্যায়ে কেউ পৌঁছাতে পারেনি। হারিরির দল ফিউচার মুভমেন্টের সাথে আমাদের মতপার্থক্য আছে ঠিকই, কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে এমনভাবে অবমাননা করার জন্য সৌদি আরবের নিন্দা জানাই।

নাসরাল্লাহ অভিযোগ করে আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরতে বাধ্য করার পর এবার নিজের দলের প্রধানের পদ থেকেও তাকে সরে যেতে চাপ দিচ্ছে রিয়াদ। এর মাধ্যমে লেবানিজদেরকে একে অন্যের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিতে চায় সৌদি।