প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়েছে : খালেদা

../news_img/57011mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ প্রসঙ্গে বলেছেন, বিদেশে সরকারের এজেন্সির লোক পাঠিয়ে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়েছে। এ কারণে তিনি দেশে আসতে পারেননি। এর আগে তাকে অসুস্থ বানিয়ে জোর করে বিদেশে পাঠানো হয়।

বিকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত জনসভায় দেয়া বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। বক্তব্যে বিচারিক ক্ষমতা দিয়ে নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন, ও ইভিএম ব্যবহার না করার দাবি জানান খালেদা জিয়া।

শেখ হাসিনার অধীনে কোন নির্বাচন হবে না বলেও বক্তব্যে উল্লেখ করেন তিনি। বলেন, মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মাধ্যমে নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে হবে।

ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম-নিপীড়নের অভিযোগ তুলে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, ক্ষমতায় এলে আওয়ামী লীগের জুলুম ক্ষমা করে দেয়া হবে।

সমাবেশে আসতে নেতাকর্মীদের বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিএনপি চেয়ারপার্সন বলেন, এ কাজের মাধ্যমে সরকার ছোট মনের পরিচয় দিয়েছে।

খালেদা জিয়া বলেন, এরা যে এতো ছোট মনের আজকে তারা দ্বিতীয় দিনের মতো প্রমাণ করে দিয়েছে। এতো ছোট মন নিয়ে রাজনীতি করা যায় না। এরা মানুষকে ভয় পায়। এ জন্য ৭ নভেম্বর আমাদের জনসভা করতে দেয়নি।

রবিবার বিকাল ৩টা ২০ মিনিটের দিকে তিনি জনসভাস্থলে প্রবেশ করেন। এসময় নেতাকর্মীরা তাকে বিভিন্ন ধরনের স্লোগানে-স্লোগানে স্বাগত জানান। সমাবেশে সভাপতিত্ব করছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এর আগে, জনসভায় যোগদানের জন্য সকাল থেকে ঢাকা ও এর আশপাশের বিভিন্ন ওয়ার্ড ও এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অবস্থান নেন। দুপুর পৌনে ২টার দিকে কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে জনসভার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।