‘সেনা মোতায়েন হবে, থাকছে না ইভিএম’

../news_img/56825 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক ::  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

একইসঙ্গে তিনি জানান, ওই নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের কোনো চিন্তা ইসির নেই।

রোববার আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব তথ্য জানান।

যদিও এর আগে আরেক নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেছিলেন, আগামী নির্বাচনে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে সেনা মোতায়েন করা হবে না। এছাড়া আরপিওতে ইভিএম ব্যবহারের বিধান যুক্ত করা হবে।

ওই বক্তব্যের তিন দিনের মাথায় ভিন্ন বক্তব্য দিলেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

মাহবুব তালুকদার বলেন, সেনা মোতায়েন হবে আগামী নির্বাচনে। এখানে একটা কিন্তু আছে। সেনাবাহিনীকে আমরা কীভাবে কাজে লাগাব, নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় সেনাবাহিনী কীভাবে যুক্ত হবে, সেটি বলার সময় এখনও হয়নি। কমিশনে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। কমিশন এ পর্যন্ত বিষয়টিতে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে আমরা কমিশনাররা মাননীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার মহোদয়ের সঙ্গে আলোচনা করেছি এবং আমাদের সবারই অনুভূতি হচ্ছে সেনা মোতায়েন হোক। তবে এটাকে কমিশনের সিদ্ধান্ত বলা যাবে না। সময়ই বলে দেবে যে কীভাবে সেনা মোতায়েন হবে।

তিনি বলেন, এখন হয়তো আমরা একটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। কিন্তু সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে সিদ্ধান্তটা উঠে আসবে। কারণ সময়ই বলে দেবে আমাদের কী সিদ্ধান্ত নেয়া দরকার। আমি কখনোই বলতে পারব না যে সেনা মোতায়েন হবে না।

সংলাপে বিএনপি সেনা মোতায়েন চেয়েছিল। তাহলে কি এটা বলা যায়, বিএনপির চাওয়ার অগ্রগতি একধাপ এগিয়ে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি এটা মনে করি না। কারণ বিএনপি তো একধাপ অগ্রগতি চায়নি। বিএনপি সেনা মোতায়েন হবে বলেনি। তারা বলেছে ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ারসহ সেনা মোতায়েন করতে হবে। তবে বিএনপির দাবির বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই।

ইভিএমের বিষয়ে এ নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমরা ইভিএমসংশ্লিষ্ট লোকজন ডেকেছিলাম। তারা আমাদের সেগুলো দেখিয়েছেন। আর এর আগে যেসব ইভিএম ব্যবহার করা হয়েছিল, সেগুলো সব বাতিল হয়ে গেছে। তাই সেগুলো ইতোমধ্যে আমরা অকার্যকর বলে ঘোষণা করেছি। এই নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতেই হবে আমাদের এমন কোনো চিন্তা আমাদের মধ্যে নেই। তবে ভবিষ্যতে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় ইভিএমকে যুক্ত করতে হবে।

তিনি বলেন, ইভিএম আমাদের এমন একটা অনিবার্য বিষয়, যা ভবিষ্যতে আমাদের ব্যবহার করতে হবে। আমরা হয়তো পারব না। আমরা পারব কীভাবে? আমাদের তো প্রাথমিক প্রস্তুতিই নেই। আমাদের একটি স্বচ্ছ নির্বাচন করতে হবে। যন্ত্রকে যদি মানুষ নিয়ন্ত্রণ করে ব্যবহার করে তাহলে সেটি দিয়ে আমরা প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন করতে পারি না।

তিনি বলেন, এটা আমার ব্যক্তিগত অভিমত এবার ইভিএম ব্যবহার হবে কিনা- এ বিষয়ে আমার সন্দেহ আছে। ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য যেই সময় দরকার, যেই অগ্রগতি দরকার, সেই রকম সময় আমাদের হাতে নেই।