আগামী সপ্তাহে পদত্যাগ করছেন সৌদি বাদশাহ!

../news_img/57088 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক ::  সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আগামী সপ্তাহে পদত্যাগ করছেন। সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ট একটি সূত্রের বরাতে ব্রিটেনের ডেইলি মেইল এই খবর দিয়েছে। বাবার পদত্যাগের পর ছেলে মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতা গ্রহণ করবেন।
 
বাদশাহ হিসেবে মোহাম্মদ বিন সালমান দায়িত্ব গ্রহণ করলেও ‘পবিত্র দুই মসজিদের জিম্মাদার’ হিসেবে থাকবেন সালমান বিন আব্দুল আজিজ। সৌদি আরব প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশটির বাদশাহের হাতেই পবিত্র কাবা ও মসজিদে নববীর জিম্মাদারের দায়িত্ব থাকতো। বিন সালমানের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে এই প্রথমবারের মতো বাদশাহের বাইরে কারো হাতে মসজিদ দুটির দায়িত্ব থাকবে।
 
ডেইলি মেইলকে সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ট ওই সূত্র জানিয়েছে, ‘যদি অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু না ঘটে তাহলে আগামী সপ্তাহেই ছেলে এমবিএসের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন বাদশাহ সালমান।’ মোহাম্মদ বিন সালমানের নামকে পশ্চিমা সরকারি কর্মকর্তা ও সাংবাদিকরা সংক্ষেপে ‘এমবিএস’ হিসেবে লিখে থাকেন।
 
সূত্র মতে, ক্ষমতাগ্রহণের পরপরই ইরানের বিরুদ্ধে নিজের পূর্ণ দৃষ্টি নিবদ্ধ করবেন বিন সালমান। বর্তমানে একাধিক ফ্রন্টে তেহরানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া সৌদি আরব আরও কঠোর হবে দেশটির বিষয়ে। এমনকি ইসরায়েলের সহাতায় লেবাননে হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেয়ার আশঙ্কা আছে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি। রাজপরিবারের সিনিয়র সদস্যদের পরামর্শ উপেক্ষা করে ইরান এবং হিজবুল্লাহকে টার্গেট করতে চান এমবিএস।
 
নিজের ক্ষমতা সংহত করা ও বিরুদ্ধ মতকে দুর্বল করতে চলতি মাসের শুরুতে সৌদি রাজপরিবারে গ্রেফতার অভিযান চালান বর্তমান ক্রাউন্স প্রিন্স এমবিএস। দেড় ডজন প্রিন্স এবং তার চেয়েও বেশি সংখ্যক বর্তমান ও সাবেক মন্ত্রীকেও দুর্নীতির অভিযোগে আটক করে রিয়াদের একটি পাঁচতারকা হোটেলে বন্দী করে রেখেছেন তিনি। এদের মধ্যে কয়েকজন সৌদি আরবের অন্যতম ধনী ব্যক্তি, যাদের ব্যাংক একাউন্টগুলো জব্দও করা হয়েছে।