বিয়ানীবাজারে ছুরিকাঘাতে ছাত্রলীগ কর্মী নিহত, আটক ২

../news_img/57295 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক ::  বিয়ানীবাজার পৌরশহরে প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাতে এক ছাত্রলীগ কর্মী খুন হয়েছেন। আনোয়ার হোসেন (২৪) নামে ওই যুবক সুপাতলা গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে। আজ শনিবার দুপুর ১২টার দিকে দক্ষিণ বাজারের আজির মার্কেটে এ হত্যাকাণ্ড হয়।
 
নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, আনোয়ারকে পূর্ব বিরোধের জের ধরে বাড়ি থেকে ডেকে এনে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে।
 
তার বড় ভাই দেলোয়ার হোসেন জানান, গত কয়েকদিন থেকে ঘাতকরা আনোয়ারকে ঘিরে নজরদারি করছিল। এ বিষয়টি আনোয়ার তার পরিবারের সদস্যদের অবহিত করেন।
 
তিনি আরো জানান, প্রায় বছর দেড়েক আগে আনোয়ারের সঙ্গে বিরোধ হয় একটি পক্ষের। যা আপোষ মীমাংসায় নিষ্পত্তি হয়। এরাই কয়েকদিন থেকে তাকে নজরদারির মধ্যে রাখে।
 
পুলিশ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আজাদ উদ্দিন (৪৫) এবং পাভেল আহমদ (২২) নামে দুইজনকে আটক করেছে।তাদের দুইজনের বাড়ি পৌর শহরের খাসা গ্রামে।

 বিভিন্ন সূত্র জানায়, প্রায় দেড় বছর পূর্বে শহরের মোকাম রোড এলাকায় একটি চায়ের স্টলে চা পান করতে যান আনোয়ার হোসেন। সেখানে পূর্ব থেকে বসা খাসা গ্রামের সায়েল আহমদের (২৩) সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার।বিষয়টি নিষ্পত্তি করে দেন স্টল মালিক ও অন্যান্যরা। অবশ্য পরে আনোয়ার ও সায়েলের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন সায়েল। তিনি দীর্ঘদিন চিকিৎসা নেন সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে। এ ঘটনায় বিয়ানীবাজার থানায় মামলা হলে পরে তা সামাজিকভাবে নিষ্পত্তি হয়। মূলত এসব কারণে আনোয়ারকে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের ধারণা।
 
বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ শাহজালাল মুন্সী জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আমরা দুইজনকে আটক করেছি। তবে মূল অভিযুক্ত সায়েল আহমদ ও তার বাবা পংকি মিয়া পলাতক রয়েছেন। আটককৃতরা সায়েলের পরিবারের সদস্য।
 
এদিকে ঘটনা পরবর্তী নিহতের স্বজনরা প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সিলেট-বারইগ্রাম সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। তারা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবি জানান। এ সময় শহরজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ, উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খান, ইউএনও মুহা. আসাদুজ্জামান, পৌর মেয়র মো. আব্দুস শুকুর ঘটনাস্থলে গিয়ে বিক্ষোভকারীদের শান্ত করেন।
 
এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।