চুলপড়া রোধে ঘরোয়া সমাধান

../news_img/57812 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: প্রতিদিনের রান্নায় অতি প্রয়োজনীয় একটি মসলাজাতীয় উপাদান হচ্ছে, পেঁয়াজ। রান্না ছাড়াও পেঁয়াজের রয়েছে বহুমুখী ওষুধি ব্যবহার।

 

ঠাণ্ডাকাশি রোধ, চুলপড়া কমাতে পেয়াজ রসের জুড়ি নেই। চুলের যত্নে আদিকাল থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে পেঁয়াজের রস । আয়ূর্বেদ শাস্ত্রমতে, পেয়াজের রয়েছে নানা ওষুধিগুণ।

 

চুলপড়া রোধে কীভাবে পেঁয়াজের রস ব্যবহার করবেন জেনে নিন।

 

প্রস্তুত প্রণালী ও ব্যবহার পদ্ধতি

১/২টি পেঁয়াজ কুচি করে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে রস বের করে নিন। চুলে দেওয়ার নারকেল তেল/অলিভ ওয়েলের সঙ্গে কাঁচা পেঁয়াজের রস মিশিয়ে নিন। মেশানোর পর মাথার তালুতে, চুলের গোড়ায় আলতো করে ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। এটি চুলে ২০-৩০ মিনিটে রাখুন। তারপর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে কয়েকবার এটি ব্যবহার করতে পারেন। নিয়মিত ব্যবহারে কয়েকদিনের মধ্যে আপনি পরিবর্তন দেখতে পাবেন। 

 

কেন চুল পড়ে?

সালফারের অভাবে চুল পড়া বেড়ে যায়। পেঁয়াজের রসে আছে প্রচুর পরিমানে সালফার। এটি মাথার ত্বকে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে। এমনকি সালফার ত্বকের কোলাজেন উৎপাদন বৃদ্ধি করে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।

 

আরো যত উপকার

পেঁয়াজে রয়েছে অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল উপাদান, যা মাথার তালুকে বিভিন্ন রোগ জীবাণু হতে রক্ষা করে। সপ্তাহে ২/৩ দিন পেঁয়াজের রস ব্যবহার করতে পারেন। এটি মাথার তালুর বিভিন্ন সমস্যা যেমন ফাঙ্গাস, খুশকি, ইনফেকশন থেকে মাথার তালুকে রক্ষা করে।

 

পেঁয়াজ তেল ঠান্ডা প্রতিরোধে সাহায্য করে। এটি একটি অত্যন্ত কার্যকর রক্ত ​​সংবহনকারী হিসেবেও কাজ করে, যা ত্বককে চমৎকার ও নমনীয় অবস্থায় রাখতে সহায়তা করে।  প্রাচীনকাল থেকেই চুল ঘন করতে ও নতুন চুল গজাতে পেয়াজের রস ব্যবহার করা হচ্ছে।