ককপিটে দুই পাইলটের হাতাহাতি!

../news_img/58068 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: মাঝ আকাশে উড়োজাহাজের ককপিটে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন দুই পাইলট। উড়োজাহাজের প্রধান পাইলট সহকারী এক নারী পাইলটকে চড় মেরেছিলেন বলেও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত সোমবার লন্ডন থেকে মুম্বাইগামী জেট এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে এই ঘটনা ঘটে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বেসামরিক বিমান পরিবহনের মহাপরিচালক জানিয়েছেন, ৩২৪ জন যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশে এই ঘটনা ঘটানোর দায়ে ওই পাইলট ও সহকারী পাইলটকে দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া প্রধান পাইলটের লাইসেন্স বাতিল করাও হয়েছে। ঘটনা তদন্তেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, লন্ডন থেকে মুম্বাইগামী জেট এয়ারওয়েজের ফ্লাইটটি প্রায় নয় ঘণ্টা ওড়ার পর ককপিটে ওই দুই পাইলটের তর্কাতর্কি শুরু হয়। একপর্যায়ে প্রধান পাইলট সহকারী নারী পাইলটকে চড় মারেন। এরপর ওই নারী পাইলট কাঁদতে কাঁদতে ককপিট থেকে বেরিয়ে আসেন। পরে যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে তিনি আবার ককপিটে চলে যান।

জেট এয়ারওয়েজ কর্তৃপক্ষ বলছে, ওই সহকারী নারী পাইলট যদি প্রধান পাইলটের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে চান তাহলে তাঁকে সহায়তা করা হবে।

জেট এয়ারওয়েজের একজন মুখপাত্র বলেন, ককপিটে ‘ভুল বোঝাবুঝির’ কারণেই এমনটা হয়েছে। সমঝোতার পরে দুই শিশুসহ ৩২৪ জন যাত্রী ও ১৪ জন ক্রু নিয়ে উড়োজাহাজটি নিরাপদে মুম্বাইয়ে অবতরণ করেছে।

জেট এয়ারওয়েজের ওই মুখপাত্র বলেন, জেট এয়ারওয়েজের কাছে যাত্রীদের, ক্রু ও সম্পদের নিরাপত্তা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। নিরাপত্তা প্রসঙ্গে কর্মীদের কোনো ব্যাপারে ছাড় দেওয়া হয় না।